শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬

মহানবী (সা.) এর কিছু হাদীস

 ধর্মচিন্তা ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৮ মে ২০১৯, শনিবার ০২:২১ পিএম

মহানবী (সা.) এর কিছু হাদীস

ঢাকা: মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালার কাছে সৃষ্টিকুলের মধ্যে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ হলেন রহমতের মূর্ত প্রতীক, করুণার আঁধার বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মাদ (সা.)।
মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে ইরশাদ করেছেন,

لَقَدْ كَانَ لَكُمْ فِي رَسُولِ اللَّهِ أُسْوَةٌ حَسَنَةٌ

‘লাক্বাদ কানা লাকুম ফি রাসূলিল্লাহি উসওয়াতুন হাসানাহ।’ 

অর্থাৎ তোমাদের জন্য রাসূলের (সা.) জীবনে রয়েছে সর্বোত্তম আদর্শ (সূরা: আল আযহাব, আয়াত: ২১)

আমাদের প্রিয়নবী রাসূল (সা.) এর কিছু হাদীস তুলে ধরা হলো-

যে জ্ঞানের সন্ধানে বের হয় সে 'আল্লাহর' পথে বের হয়। (তিরমিযী)

ধৈর্য জান্নাতের ভান্ডারসমূহের একটি ভান্ডার। (বায়হাকি)

স্বামী খুশি থাকা অবস্থায় কোনো স্ত্রীলোক মারা গেলে সে জান্নাতি। (তিরমিযী ১১৬৯)

মহিলাদের নামাজ তাদের ঘরের গোপন কক্ষে পড়া উত্তম। ( আবুদাউদ, হা, ৫৭০ ইঃফাঃ)

উত্তম স্ত্রী তো সেই যার দিকে তাকিয়ে স্বামী আনন্দিত হয়। স্বামী কোনো কিছু আদেশ করলে তা পালন করে এবং স্বামী যা অপছন্দ করেন, স্ত্রী তা করে না । (মিশাকাত ৩২৭২) 

তোমরা হিংসা-বিদ্বেষ থেকে নিবৃত্ত থাকবে। কেননা, হিংসা মানুষের নেক আমল বা পুণ্যগুলো এমনভাবে খেয়ে ফেলে, যেভাবে আগুন লাকড়িকে জ্বালিয়ে নিঃশেষ করে দেয়। (আবু দাউদ)

আমার উম্মতকে ভুল, বিস্মৃতি ও জবরদস্তির গুনাহ হতে নিষ্কৃতি দেয়া হয়েছে। (সুনানে ইবনে মাজাহ- ২০৪৫)

একটি যুগ আসবে যখন মানুষ উপার্জন করতে একথা চিন্তা করবে না যে, আমি হালাল পন্থায় উপার্জন করছি, নাকি হারাম পন্থায়! (সহীহ বুখারি, হাদিস- ১৯৪১)

সোনালীনউজ/ঢাকা/এসআই