বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬

মাদরাসাছাত্রীর বিবস্ত্র মরদেহ ঝুলিয়ে রাখল ধর্ষকরা

বাগেরহাট প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৪ জুলাই ২০১৯, বৃহস্পতিবার ১২:৫৭ পিএম

মাদরাসাছাত্রীর বিবস্ত্র মরদেহ ঝুলিয়ে রাখল ধর্ষকরা

বাগেরহাট : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় হিরা আক্তার (১২) নামে ষষ্ঠ শ্রেণির মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে বিবস্ত্র মরদেহ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার (৩ জুলাই) বিকাল পর্যন্ত পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন যুবককে আটক করেছে।

আটকরা হলেন মোরেলগঞ্জ উপজেলার ফুলহাতা গ্রামের সিদ্দিক সিকদারের ছেলে ওসমান সিকদার (২৪), পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামের আলম মৃধার ছেলে শাহিন (১৯) ও সোবাহান মৃধার ছেলে রফিকুল মৃধা (১৯)।

বুধবার (৩ জুলাই) দুপুরে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিহত মাদরাসাছাত্রীর মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। গত মঙ্গলবার রাতে মোরেলগঞ্জ উপজেলার বহরবুনিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রাম থেকে ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত হিরা ছাপড়াখালী গাজীরঘাট দাখিল মাদরাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী এবং পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামের দিনমজুর গাউস শেখের মেয়ে।

নিহত মাদরাসাছাত্রীর বাবা গাউস শেখ অভিযোগ করে বলেন, আমার স্ত্রী পারিবারিক কাজে বাগেরহাট শহরে যান। এ সময় আমি ও আমার মেয়ে হিরা আক্তার বাড়িতে ছিলাম। মঙ্গলবার বিকালে আমি মেয়ে হিরাকে বাড়িতে একা রেখে কেনাকাটা করতে বাড়ির বাইরে যাই। সেখান থেকে ফিরে রাতে এসে দেখি আমার মেয়েকে বিবস্ত্র অবস্থায় ঘরের আড়ার সঙ্গে গামছা দিয়ে ঝুলানো। আমার মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ঝুলিয়ে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজুল ইসলাম বলেন, রাতেই বাগেরহাট পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি এক্সপার্ট টিম নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ধারণা করা হচ্ছে, মেয়েটিকে পরিকল্পিতভাবে ধর্ষণ শেষে হত্যা করে নগ্ন অবস্থায় ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। বিভিন্ন ধরনের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। এই হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে তিন যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। কারা কী কারণে এই মেয়েটিকে হত্যা করল তা পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue