রবিবার, ৩১ মে, ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

মিঠামইনে ত্রাণের তালিকায় ইউপি সদস্যের স্ত্রী-পুত্রদের নাম

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ মে ২০২০, শনিবার ০৪:৩৫ পিএম

মিঠামইনে ত্রাণের তালিকায় ইউপি সদস্যের স্ত্রী-পুত্রদের নাম

কিশোরগঞ্জ : করোনা ভাইরাস উপলক্ষে আসা ত্রাণ সামগ্রী বন্টনে মিঠামইন উপজেলার ৬নং কাটখাল ইউনিয়ন পরিষদের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হোসেন মিয়া, ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী ও ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইদুর রহমান এর বিরুদ্ধে তালিকায় ইউপি সদস্যের স্ত্রী ও পুত্রসহ আত্মীয়স্বজনের নাম অন্তর্ভূক্ত করার অভিযোগ ওঠেছে। এছাড়া ৪০টি কর্মহীন পরিবারের নাম ত্রাণ সামগ্রীর তালিকায় না দেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে।

ত্রাণবঞ্চিতদের মধ্যে ৮নং ওয়ার্ডের কাকুয়া গ্রামের আকলিমা আক্তার অভিযোগ করেন, তারা দিনমজুর। করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করলেও এ পর্যন্ত তারা কেউ কোন ত্রাণ পাননি।

৭ নং ওয়ার্ডের ত্রাণবঞ্চিত দিনমজুর তাহের আলী, ৮ নং ওয়ার্ডের হাজেরা খাতুন ও ৯ নং ওয়ার্ডের শাহেরা জানান, করোনা ভাইরাস আসার পর কাটখাল ইউনিয়নে আসা বিভিন্ন ত্রাণ সামগ্রী মধ্যে তারা কিছুই পাননি।

তারা অভিযোগ করেন, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সদস্যগণের নিকট ত্রাণের জন্য গেলে তাদেরকে ত্রাণ দিবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। বর্তমানে কর্মহীন অবস্থায় তারা অনাহারে অর্ধাহারে দিনযাপন করছেন।

ত্রাণবঞ্চিতরা অভিযোগ করেন, এ সকল ইউপি সদস্যগণ তাদের আত্মীয়স্বজনের নাম তালিকায় অন্তর্ভুুক্ত করেছেন। এমনকি তালিকায় ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী রাহেলা খাতুন এবং দুই ছেলে আতিক ও সাইফুলের নাম রয়েছে।

এছাড়া এলাছ মিয়া ও তার স্ত্রী পারভিনের নাম একই তালিকায় রয়েছে। সংরক্ষিত আসনের মহিলা সদস্য ডালিয়া আক্তারের পুত্র হুসাইন মিয়ার নামও রয়েছে। এমনভবে এই তিনটি ওয়ার্ডে অসংখ্য নাম রয়েছে ত্রাণের তালিকায়।

অভিযুক্ত ৮ নং ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী জানান, তার ওয়ার্ডে ১২০টি নাম রয়েছে। তিনি সঠিকভাবেই তালিকা করেছেন। তবে যাদের নাম কোন তালিকায় দেয়া যায়নি পরবর্তীতে কোন সুযোগ এলে তাদের নাম দেওয়ার চেষ্টা করবেন বলেও তিনি জানান।

একই ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হোসেন মিয়া ও ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সাইদুর রহমানকে মোবাইল ফোনে চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। তারা ফোন তুলেননি।

কাটখাল ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম জানান, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যরাই তালিকা করে থাকে। অভিযোগের বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না। 

সোনালীনিউজ/এএস
 

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue