শনিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭

মুক্তিযুদ্ধের নতুন সিনেমা ‘১৯ শে মার্চ’

বিনোদন প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার ০৩:২৭ পিএম

মুক্তিযুদ্ধের নতুন সিনেমা ‘১৯ শে মার্চ’

ঢাকা : ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের পর পাকিস্তানিরা বাঙালিদের ওপর নির্মম বর্বরতার প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে বাঙালি সৈন্যদের নিরস্ত্র করার কালো ছক কষে। তারই ধারাবাহিকতায় জয়দেবপুরে (বর্তমান গাজীপুর) ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের অস্ত্র নিয়ে আসতে গেলে ১৯ মার্চ গাজীপুরের শ্রমিক, ছাত্র, জনতা মিলে সশস্ত্র প্রতিরোধ গড়ে তোলে। সেদিন তিনজন মারা যান। পরে আহত অবস্থায় একজন মৃত্যুবরণ করেন।

এছাড়া অনেকে আহত হন। সেই কালজয়ী ঘটনা নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ‘১৯ শে মার্চ’ নামে চলচ্চিত্র। শাহনাজ পারভীনের কাহিনী নিয়ে এ চলচ্চিত্রের চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন মেজবাহ উদ্দিন সুমন। এটি পরিচালনা করছেন তরুণ নাট্যনির্মাতা আজাদ আল মামুন। এটি তার অভিষেক চলচ্চিত্র।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি চলচ্চিত্রটির মহরত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী ও ১৯৭১ সালের ১৯ মার্চের নেতৃত্বদানকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম মোজাম্মেল হক।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ১৯ মার্চ শহীদ নেয়ামত, শহীদ মনু খলিফা, শহীদ হুরমত ও শহীদ কানু মিয়ার পরিবারের সদস্যরা। আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান মেজর জেনারেল কে এম সফিউল্লাহ, গাজীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলিম উদ্দিন বুদ্দিন, সদস্য আবদুল হাদি শামিম, ১৯ মার্চের নেতৃত্বদানকারী নজরুল ইসলাম খান, সাত্তার মিয়া, আবুল হোসেন, শামসুল হকের পরিবার, হাবিবউল্লাহর পরিবারের সদস্যসহ অনেকে।

চলচ্চিত্রটির পরিচালক আজাদ আল মামুন বলেন, বিএফডিসির নিবন্ধন অনুযায়ী আমার প্রথম চলচ্চিত্র ‘সূর্য সন্ধ্যা’, দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ‘১৯ শে মার্চ’। কিন্তু দ্বিতীয় চলচ্চিত্রের গল্প এত বেশি প্রভাবিত করেছে যে, এই চলচ্চিত্রের নির্মাণকাজ আগে শুরু করেছি। চলচ্চিত্রটিতে সঠিক ইতিহাস তুলে ধরতে চাই।

চলচ্চিত্রটির বিভিন্ন চরিত্রে কে বা কারা অভিনয় করবেন সে বিষয়ে কিছু জানাননি পরিচালক। এমনকি মহরত অনুষ্ঠানেও কেউ উপস্থিত ছিলেন না। এ প্রসঙ্গে আজাদ আল মামুন বলেন, মহরত অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কোনো অভিনেতা-অভিনেত্রীকে পরিচয় করিয়ে দিইনি। এর অন্যতম কারণ এটি ইতিহাসের কালজয়ী একটি ঘটনা। যে ঘটনার নেতৃত্বদানকারীর মধ্যে অনেকে বেঁচে আছেন।

ইচ্ছা ছিল ১৯ মার্চে শহীদ পরিবারসহ নেতৃত্বদানকারী যারা বেঁচে আছেন এবং যারা মারা গেছেন তাদের পরিবারের সকলের সামনে বিষয়টি তুলে ধরা। খুব শিগগির সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে চলচ্চিত্রটির সব শিল্পী-কুশলীকে পরিচয় করিয়ে দেবেন পরিচালক। তুলি মাল্টিমিডিয়ার ব্যানারে নির্মাণাধীন এ চলচ্চিত্রের শুটিং আগামী মার্চে শুরু হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue