রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

মুখোমুখি এবার খাদিজা-বদরুল

সিলেট প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, রবিবার ০৩:১৪ পিএম

মুখোমুখি এবার খাদিজা-বদরুল

সিলেট: দীর্ঘ চার মাস পর আজ রোববার (২৬ ফেব্রুয়ারি) মুখোমুখি হয়েছেন কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিস ও তার হত্যাচেষ্টাকারী ছাত্রলীগ নেতা (বহিষ্কৃত) বদরুল আলম।

খাদিজা চাপাতি দিয়ে ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের বর্বর হামলার বর্ণনা দিবেন বলে সকাল ১০টায় বাড়ি থেকে আদালতের উদ্দেশে রওনা দেন। প্রাইভেট কারে খাদিজাকে আদালতে নিয়ে আসেন তার পরিবারের লোকজন। এ সময় খাদিজার সঙ্গে ছিলেন পিতা মাসুক মিয়া, চাচা কুদ্দুস মিয়া, মামা আব্দুল বাছিত ও ফুফু আখতারুন্নেছা। 

এদিকে, এর আগে খাদিজাকে হত্যাচেষ্টা মামলার একমাত্র আসামি বদরুলকে সকাল ১০টায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতের কারাগারে আনা হয়। 

বদরুলের চাপাতির আঘাতে গুরুতর আহত হওয়ার ৩ মাস ২২ দিন পর রোববার সকাল ১০টা ৪০মিনিটে হামলাকারীর বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিতে সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির হন খাদিজা। আদালতে বিচারকের সামনে বদরুলকে চিহ্নিত করে তার বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেন তিনি। এসময় তার বাবা-মা ও ভাই সঙ্গে ছিলেন। 

সিলেট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে খাদিজা

সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এ মামলার যুক্তিতর্কের শুনানির জন্য আগামী ১ মার্চ দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত। 

গত বছরের ৩ অক্টোবর এমসি কলেজের পুকুরপাড়ে সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী খাদিজা বেগম নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অনিয়মিত ছাত্র ও শাবি ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম। ঘটনার পরপরই শিক্ষার্থীরা বদরুলকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

এ ঘটনায় খাদিজার চাচা আবদুল কুদ্দুস বাদী হয়ে বদরুলকে একমাত্র আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ৫ অক্টোবর বদরুল আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন আদালত। এছাড়া ঘটনার পর শাবি থেকে চিরতরে বহিষ্কার করা হয় বদরুলকে।

শাবি ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের চাপাতির কোপে গুরুতর আহত হওয়া খাদিজাকে প্রথমে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে তাকে আনা হয় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে। কিছুটা সুস্থ হওয়ার পর ২৮ নভেম্বর সাভারের সিআরপিতে ভর্তি করা হয় খাদিজাকে। প্রায় তিন মাস সেখানে চিকিৎসাধীন থাকার পর শুক্রবার সুস্থ হয়ে সিলেটে নিজের বাড়িতে ফিরে যান খাদিজা। মাঝে ফেব্রুয়ারির প্রথম দিকে সপ্তাহখানেকের জন্য বাড়ি ঘুরে যান তিনি।

সোনালীনিউজ ডটকম/ঢাকা/এআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue