মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬

মুসলিম নিধনের ঘটনায় চীন-মার্কিন উত্তেজনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৪:৪৯ পিএম

মুসলিম নিধনের ঘটনায় চীন-মার্কিন উত্তেজনা

ঢাকা : চীনের জিনজিয়াং প্রদেশের উইঘুর সংখ্যালঘু মুসলিমদের ওপর চলমান দমনপীড়নের ঘটনায় দেশটির সরকারি কর্মকর্তা ও কমিউনিস্ট নেতাকর্মীদের ভিসা বন্ধের কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এদিকে এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে চীন কিছু জানানো হয়নি বলে জানিয়েছেন চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  

সেনা একজন মুসলিম নারীকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। এর আগে সোমবার (৭ অক্টোবর) চীনের ২৮টি প্রতিষ্ঠানকে কালো তালিকাভুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, এই ধরনের ব্যবস্থা যদি সত্যি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে থাকে তবে তা হবে দেশটির অভ্যান্তরীণ বিষয়ে মার্কিন নাক গলানো এবং দেশটির সার্বভৌমত্বের ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ। চীন এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সংখ্যালঘু দমন অভিযানের অবসান ঘটাতে এবং নির্বিচারে আটক সবাইকে মুক্তি দিতে চীনের প্রতি আহ্বান জানান।

এর আগে মার্কিন সরকার থেকে বলা হয়, জিনজিয়াং পার্টির সেক্রেটারি চেইন কোয়াঙ্গুওসহ অন্যান্য মুসলমানদের ওপর অত্যাচারে জড়িত চীনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ট্রাম্প প্রশাসন নিষেধাজ্ঞার কথা চিন্তা করছে।

বৃদ্ধ একজন নারীকে সেনারা লাঠিপেটা করছে

তবে ঘোষণায় ভিসার বিধিনিষেধের আওতাধীন কর্মকর্তাদের নাম উল্লেখ করা হয়নি। এদিকে এ পদক্ষেপ মার্কিন শেয়ার বাজারকে নিন্মমুখী করে দিয়েছে। এতে মার্কিন ও চীনাদের সম্পর্ক আরও সংকটে পরবে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান সিনেটর টম কটন এ ঘোষণার প্রশংসা করেছেন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিত্রদের অনুরোধটি অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, চীনা কর্মকর্তাদের মধ্যে যারা উইঘুর এবং অন্যান্য সংখ্যালঘু গোষ্ঠীকে ডিটেনশন ক্যাম্পগুলোতে রাখেন, তাদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ঘুরে দেখার এবং আমাদের স্বাধীনতা উপভোগ করার অনুমতি দেওয়া উচিত নয়।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue