শনিবার, ০৮ আগস্ট, ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

মুসলিম ফুটবলার ওজিল ১ হাজার শিশুর অপারেশনের দায়িত্ব নিলেন

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার ১২:১৩ পিএম

মুসলিম ফুটবলার ওজিল ১ হাজার শিশুর অপারেশনের দায়িত্ব নিলেন

ঢাকা :  যে সকল মুসলিম খেলোয়াড় খেলার মাঠেও ধর্ম পালনে সর্বদা প্রস্তত তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী তারকা মিডফিল্ডার মেসুত ওজিল। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শরণার্থীদের পাশেও তাকে সবসময় পাওয়া যায়।

 

এবার ১০০০ শিশুর অপারেশনের দায়িত্ব নেবার কথা জানিয়ে নিজের মহত্বের প্রমাণ আরও একবার দিলেন ওজিল। সেইসঙ্গে আরো এক লক্ষাধিক মানুষকে খাওয়ানোরও ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। সূত্র : দ্য সান।

 

একইসঙ্গে আরও এক লাখের বেশি গৃহহীন অনাহারী মানুষকে খাওয়ানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন ওজিল। এর মাধ্যমে আবারো নিজের মহত্বের প্রমাণ দিলেন এই জার্মান ফুটবলার।

৬ বছর আগে সাড়ে ৪২ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ডে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে আর্সেনালে যোগ দেন ওজিল।  এরপর উত্তর লন্ডনে একটি বিলাসবহুল বাড়ি কেনেন তিনি।  সেটির রান্নাঘরের দেয়ালে একটি চিঠি ঝুলিয়ে রাখেন তার মা গুলিজার ওজিল।

তাতে লেখা ছিল, ‘মেসুত, ভুলে যেও না এই পৃথিবীতে আমাদের সবার মতো তুমিও একজন অতিথি।  আল্লাহ তোমাকে বিশেষ মেধা দিয়ে সৃষ্টি করেছেন।  কিন্তু সেটা শুধু তোমার নিজের মঙ্গলের জন্য নয়।  যদি তুমি তোমার সম্পদ গরিব অসহায় মানুষদের সঙ্গে ভাগ না কর, তা হলে তুমি আমার ছেলে নও।’

মায়ের সেই আদেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করার চেষ্টা করেন ওজিল।  সুযোগ পেলেই দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ান। গত গ্রীষ্মে সাবেক মিস তুর্কি এমাইন গালসকে বিয়ে করেন বিশ্বকাপজয়ী এ মিডফিল্ডার।  বিয়ের দিনই স্ত্রীকে জানান, ১০০০ অসুস্থ শিশুর অস্ত্রোপচারে সহায়তা করতে চান তিনি।

সানস্পোর্টকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে ওজিলের বিশ্বস্ত এজেন্ট এর্কুত সোগাত এসব তথ্য দিয়েছেন।  তিনি জানান, নতুন এ কাজে তার কমপক্ষে ১০ মিলিয়ন ইউরো খরচ হবে।

তবে এটাকে মামুলি বিষয় মনে করেন তুর্কি বংশোদ্ভূত জার্মানির সাবেক মিডফিল্ডার। নিজেকে মানবতার সেবায় নিয়োজিত করতেই বেশি পছন্দ করেন তিনি।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue