রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬

মেয়ের শ্বশুরবাড়ির জঙ্গলে মায়ের গলাকাটা লাশ, আটক ৩

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০১ মার্চ ২০২০, রবিবার ০৫:০৩ পিএম

মেয়ের শ্বশুরবাড়ির জঙ্গলে মায়ের গলাকাটা লাশ, আটক ৩

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের ভালুকায় উপজেলায় মেয়ের শ্বশুরবাড়ির জঙ্গল থেকে মা হেনা আক্তার (৪১) নামে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মেয়ের স্বামী, শাশুরী ও মামাশশুরকে জিজ্ঞসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। এদিকে পুলিশ খবর পেয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

রোববার (১ মার্চ) সকালে উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামে নিহতের বড় মেয়ে মিলি আক্তারের শ্বশুরবাড়ির পাশে কুমাড়কাটা জঙ্গল থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, ভালুকা উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামের রফিকুল ইসলাম রবির স্ত্রী হেনা আক্তার। তিনি শনিবার দুপুরে একই গ্রামের কুমাড়কাটা পাড়া এলাকায় মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে বেরাতে যান। 

রাতে মেয়ের শাশুড়ি সমলা আক্তার (৬০) ও নাতি শ্রাবনীকে (৭) নিয়ে পাশের রুমে ঘুমাতে পড়েন। পরে রোববার ভোরে হেনা আক্তারকে ঘরে না পেয়ে পরিবার ও স্থানীয়রা তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। 

একপর্যায়ে বাড়ির পশ্চিম পাশের জঙ্গলে গলাকাটা অবস্থায় লাশ দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন।

এবিষয়ে নিহতের মেয়ে মিলি আক্তার জানান, তার মা গত শনিবার দুপুরে তার বাড়িতে বেড়াতে আসে। তিনি রাতে তার শাশুড়ি ও মেয়ের সাথে ঘুমাতে যান। রাতের কোনো এক সময় তার মা দরজা খুলে ঘর থেকে বেরিয়ে গিয়ে ছিলেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম জানান, হেনা আক্তার আট মাস আগে স্বামী আব্দুল মতিনকে ডিভোর্স দিয়ে ননদের জামাই রফিকুল ইসলাম রবির সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। পরে তারা বিভিন্নস্থানে বাসা ভাড়া নিয়ে অবস্থান করছিলেন।

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইনউদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকালে উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামে নিহতের বড় মেয়ে মিলি আক্তারের শ্বশুরবাড়ির পাশে কুমাড়কাটা জঙ্গল থেকে নারীর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পরে ময়নাতদন্তের জন্য মমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। হত্যারহস্য উৎঘাটনের জন্য পুলিশ ও সিআইডি এ ব্যাপারে তদন্ত করছেন। 

এ ঘটনায় মেয়ের স্বামী, শাশুরী ও মামাশ্বশুরকে জিজ্ঞসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানিয়েছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

সোনালীনিউজ/এমআর/এসআই 

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue