বুধবার, ২৭ মার্চ, ২০১৯, ১৩ চৈত্র ১৪২৫

রংপুর-ঢাকার শক্তি প্রদর্শনের লড়াইয়ে মাশরাফি বনাম সাকিব

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১০ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার ০৯:৩৯ পিএম

রংপুর-ঢাকার শক্তি প্রদর্শনের লড়াইয়ে মাশরাফি বনাম সাকিব

ঢাকা: বিপিএল এখনও পর্যন্ত সেভাবে জমে ওঠেনি। তবে শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) থেকে চিত্রটা পাল্টেও যেতে পারে। দুপুর ২টায় যে মুখোমুখি হবে রংপুর রাইডার্স বনাম ঢাকা ডায়নামাইটস। এটিকে এভাবেও বলা যায় মাশরাফি বিন মুর্তজা বনাম সাকিব আল হাসান। কেউ কারও চেয়ে কম যান না।

মাশরাফির রংপুর তিন ম্যাচ খেলে জিতেছে দুটিতে। সাকিবের ঢাকা দুই ম্যাচ খেলে দুটিতেই জিতেছে দাপট দেখিয়ে।

গতবার বিপিএলের ফাইনালেও এই দু’দল মুখোমুখি হয়েছিল। যেখানে ক্রিস গেইলের সেঞ্চুরিতে এলোমেলো হয়ে গিয়েছিল ঢাকা। গেইল এবারও থাকছেন। যদিও প্রথম ম্যাচে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। তবে ধারাবাহিক পারফর্ম করে চলেছেন রবি বোপারা ও রাইলি রুশো। খুব সম্ভবত এই তিন বিদেশির সঙ্গে থাকবেন বেনি হাওয়েল।

শক্তিমত্তায় পিছিয়ে নেই ঢাকাও। বরং রংপুরের চেয়ে এগিয়েই তারা। এর কারণ তাদের বিদেশি কোটায় খেলা তিনজনই বড় অলরাউন্ডার। আর এই তিনজনের সবাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের-সুনিল নারিন, কাইরণ পোলার্ড ও আন্দ্রে রাসেল। গোটা বিশ্বজুড়ে তারা টি-টোয়েন্টি খেলে বেড়ান। একবার বলে ব্যাটে লাগতে শুরু করলে এদের থামানো মুশকিল। আর হযরতউল্লাহ জাজাই তো আরেক বিস্ময়ের নাম। ঢাকার এই আফগান তারকা তো আগুন জ্বালিয়েই রেখেছেন। পরপর দুই ম্যাচে ফিফটি করে ম্যাচ সেরার পুরস্কার বাগিয়ে নিয়েছেন। নিশ্চিতভাবেই তিনি রংপুরের বিপক্ষেও থাকবেন স্পট লাইটে।

বল হাতে দুদলের অধিনায়কই আছেন ফর্মের তুঙ্গে। তিন ম্যাচে এরমাঝেই ৭ উইকেট দখল করেছেন মাশরাফি। সেরা ১১ রানে ৪ উইকেট। এটি মাশরাফি পেয়েছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে মাশরাফির এটাই সেরা বোলিং ফিগার। কম যাচ্ছেন না সাকিবও। ব্যাট হাতে বড় স্কোর করতে না পারলেও বল হাতে দুই ম্যাচে তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে শেষ ম্যাচে ১৮ রানে তুলে নিয়েছেন ৩ উইকেট। কাজেই ম্যাচটি শুধু রংপুর বনাম ঢাকার নয়, মাশরাফি বনাম সাকিবেরও।

সোনালীনিউজ/আরআইবি/এমএইচএম

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue