বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

রাতেই জামালপুর থেকে ডিসি ও সেই নারী উধাও

জামালপুর প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৫ আগস্ট ২০১৯, রবিবার ০৬:৪৬ পিএম

রাতেই জামালপুর থেকে ডিসি ও সেই নারী উধাও

জামালপুর : নারী কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে জনরোষ থেকে বাঁচতে  রাতের আধারে জামানপুর থেকে পালিয়েছেন ডিসি আহমেদ কবীর ও সেই অফিস সহকারী।

জানা গেছে, বরখাস্তের খবর নিশ্চিত হয়ে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থায় শনিবার (২৪ আগস্ট) শেষরাত ৩টার দিকে তিনি জামালপুর ছেড়ে ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে আশ্রয় নেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এবিএম ইফতেখারুল ইসলাম খন্দকার স্বাক্ষরিত আদেশপত্র জামালপুরে পৌঁছায় রোববার দুপুর দেড়টায়। সেই আদেশে আহমেদ কবীরকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়েছে। তার স্থলে নতুন জেলা প্রশাসক হিসেবে যোগদান করছেন পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ এনামুল হক।

এদিকে ডিসির সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্ত নিয়ে আলোচিত ডিসির সেই নারী অফিস সহকারী সানজিদা ইয়াসমিন সাধনার রোববার কর্মক্ষেত্রে যোগদানের কথা ছিল। কিন্তু  কর্মক্ষেত্রে তিনি অনুপস্থিত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রাজিব কুমার সরকার।

বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক জানান, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছি। সাধনা এখন কোথায়, সঠিক হদিস বলতে পারছে না কেউ। সাধনার পরিবারের সঙ্গে এনিয়ে যোগাযোগ করা হলে তার মা নাসিমা আক্তার বলেন, মেয়ে বেড়াতে গেছে। কোথায় বেড়াতে গেছে এ বিষয়ে মুখ খোলেননি তিনি। তার হদিস না থাকায় নতুন করে প্রশ্ন উঠেছে সাধনা নিজ থেকে আত্মগোপন করেছেন নাকি আহমেদ কবীর তাকে অন্যত্র সরিয়ে রেখেছেন।

রোববার ডিসির বরখাস্তের খবর খবর চাউর হলে তাঁর অফিসে গিয়ে তথ্য সংগ্রহের জন্য ভিড় জমান সাংবাদিকরা। অনেক উৎসুক মানুষও এসেছে সর্বশেষ খবর জানতে। ডিসি অফিস প্রাঙ্গণ ও আশপাশে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন ছিল চোখে পড়ার মতো। ডিসি অফিসের বারান্দায় বসানো হয়েছিল ভিক্ষুকমুক্ত জামালপুরের প্রচারণায় একটি এলইডি টিভি। সেখানে ডিসি আহমেদ কবীরের বক্তব্য থাকায় হামলার আশঙ্কায় টিভিটি সরিয়ে রাখা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

তবে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রাজিব কুমার সরকার বললেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেছেন দুদিন বন্ধ থাকায় টিভিটি খুলে রাখা হয়েছে। রোববার সকালে সেটা যথাস্থানে থাকার কথা। অথচ দুপুর ২টা পর্যন্ত এ প্রতিবেদক ডিসি অফিসে অবস্থানকালে টিভিটি দেখতে পাওয়া যায়নি। নারী কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত ডিসি আহমেদ কবীরের ওএসডি ও বদলিতে সন্তুষ্ট নয় জামালপুরবাসী। তার চাকরিচ্যুতিসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি তুলেছেন সংক্ষুব্ধরা। সেই সঙ্গে ছায়াডিসি খ্যাত প্রভাবশালী পিয়ন সাধনারও বিচারের দাবি জানিয়েছেন।

সোনালীনিউজ/এএস 

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue