মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই, ২০২০, ২২ আষাঢ় ১৪২৭

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের বিরুদ্ধে গণ আন্দোলনের আহ্বান মান্নার

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৮ জুন ২০২০, রবিবার ০৭:৫৩ পিএম

রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের বিরুদ্ধে গণ আন্দোলনের আহ্বান মান্নার

ফাইল ছবি

ঢাকা: ধারাবাহিকভাবে লোকসানে থাকা রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর প্রায় পঁচিশ হাজার স্থায়ী শ্রমিককে স্বেচ্ছা অবসরে (গোল্ডেন হ্যান্ডশেক) পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এই অবস্থায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গণ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

রোববার (২৮ জুন) নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাকিব আনোয়ার স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মান্না বলেছেন, করোনার মতো এত বড় একটা বিপর্যয়ের মধ্যে নতুন করে দেশের ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের ২৫ হাজার শ্রমিককে কর্মহীন করার সিদ্ধান্ত কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। এই শ্রমিকদের বেতন-ভাতা নিয়মিতভাবেই বকেয়া হয়ে পড়ে। পাওনা আদায়ের জন্য শ্রমিকদের প্রায়ই আন্দোলনে নামতে হয়। বিগত বছরগুলোয় যারা অবসরে গিয়েছেন, তারাও অবসর সুবিধা পাচ্ছেন না।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) অধীন পাটকলগুলো বন্ধের পরিকল্পনা করছে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রীও নাকি এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পক্ষে মত দিয়েছেন বলে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে। কারণ হিসেবে ক্রমাগত লোকসানের কথা বলা হয়েছে। একই সঙ্গে পরবর্তী সময়ে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারির (পিপিপি) ভিত্তিতে পুনরায় পাটকলগুলো চালু করা হবে বলে জানানো হয়েছে। তার মানে বেসরকারি অংশীদারিত্বে পরিচালিত হলে লোকসান হবে না। অর্থাৎ সমস্যাটা পাট শিল্পের নয়। সরকারের ব্যবস্থাপনা, দুর্নীতি, লুটপাট আজকে পাট শিল্পকে এই অবস্থানে নিয়ে এসেছে। অথচ কয়েক দশক ধরে এই শিল্পই বাংলাদেশের অর্থনীতির অন্যতম স্তম্ভ ছিল।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক বলেন, করোনা মহামারীতে যেখানে সরকারের পাটকল শ্রমিকদের পাশে দাঁড়ানোর কথা, সেখানে এরকম একটি সিদ্ধান্ত সরকারের জনবিচ্ছিন্নতাকে আরেকবার সামনে এনেছে। জনগণের ম্যান্ডেটহীন, ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় আসা একটা সরকার এরকম গণবিরোধী সিদ্ধান্ত নেবে এটাই স্বাভাবিক।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue