বুধবার, ২৬ জুন, ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

রিকশার কারণে যান চলাচলের গতি থমকে যায়

ফাহাদ মোহাম্মদ | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার ১১:৫৫ এএম

রিকশার কারণে যান চলাচলের গতি থমকে যায়

সিলেটের যানজটের অন্যতম একটি কারণ হলো রিকশা। রিকশা নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে গাড়ির গতি বাড়বে আর তার ফলে বাড়বে শহরের গতি। রিকশা যেহেতু স্থায়ীভাবে বন্ধ করার উদ্যোগ কেউ নিবে না। কারণ এখানে বিরাট জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা আছে। তাই কেউ এখানে রিকশা বন্ধের পদক্ষেপ নিবে না। তাই রিকশার বিকল্প চিন্তার সময় এসেছে। কারণ রিকশার কারণে যান চলাচলের সাভাবিক গতি থমকে যায়।

রিকশার বিকল্প কি হতে পারে, রিকশাতে মোটর লাগানো? না, রিকশাতে ব্যাটারী চালিত মোটর লাগালেই সমাধান আসবে না৷ কারণ এর আগেও এরকম রিকশা উদ্ভাবন হয়েছিল। কিন্তু সেটি ছিলো খুবই বিপদজনক। ব্যটারিচালিত রিকশাগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা খুব খারাপ। যানের তুলনায় গতি বেশি। তাই চালকের পক্ষে সেটা নিয়ন্ত্রণ করা কষ্টকর হত৷ এতে করে প্রায়শই দুর্ঘটনা ঘটে। তাই এই সিস্টেমে সমাধান সম্ভব নয়। আমাদের ভিন্ন কিছু নিয়ে চিন্তা করতে হবে। তাহলে সমাধান কি হতে পারে?

বেকার জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের কথা মাথায় রেখে রিকশার বিকল্প হিসেবে রিকশাকেই চিন্তা করতে হবে। সুতারাং এমন একটি যান আনতে হবে যাতে করে, রিকশার চাহিদা মিটে, কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়, রাস্তায় গতি আসে, সহজে নিয়ন্ত্রন করে নিরাপদে চলাচল করা যায়, আবার সেই যানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া যায়। এসব দিক বিবেচনা করলে সিএনজি চালিত অটোরিকশা হতে পারে বিকল্প। কিন্তু প্রাইভেট চলাচলের জন্য সিএনজি অটোরিকশা একটু ব্যয়বহুল। আমাদের রিকশার মতোই সহজলভ্য বাহন নিয়ে ভাবতে হবে।

বাজারে নতুন এক ধরণের রিকশা বের হয়েছে। সেটিকে আরো ত্রুটিমুক্ত করে, ব্রেক ও কন্ট্রোলিং ব্যবস্থা উন্নত করে পাইলট প্রকল্প হিসেবে পরীক্ষা করে দেখা যেতে পারে। এর চালকদের বিশেষ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সীমিত সংখ্যক রিকশা সিটি কর্পোরেশনের মাধ্যমে রাস্তায় নামানো যেতে পারে। সার্বক্ষণিক মনিটরিং এর মাধ্যমে দুষ ত্রুটি খুঁজে বের করে সমাধান করতে হবে। এই বিষয়ে আরো গবেষণা করা যেতে পারে।

লেখক-ফাহাদ মোহাম্মদ, ট্রাফিক সার্জেন্ট, বাংলাদেশ পুলিশ।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন


*** প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব ভাবনার প্রতিফলন। সোনালীনিউজ-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে লেখকের এই মতামতের অমিল থাকাটা স্বাভাবিক। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য সোনালীনিউজ কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না। এর দায় সম্পূর্ণই লেখকের।