বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত

গাজীপুর প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২২ মে ২০২০, শুক্রবার ০৮:৩৩ এএম

র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত

গাজীপুর: ঢাকার অদূরে গাজীপুরের টঙ্গীতে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আবু সুফিয়ান নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ মে) দিবাগত রাত ১২টার দিকে টঙ্গীর মধুমিতা রেললাইন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে তিন রাউন্ড গুলি ও একটি বিদেশি অস্ত্র উদ্ধার করেছে র‌্যাব। র‌্যাবের দাবি, নিহত আবু সুফিয়ান চাঞ্চল্যকর শিশু চাঁদনী (৭) হত্যা ও ধর্ষণের প্রধান আসামি। সে সিরিয়াল ধর্ষক।

র‌্যাব-১ এর গাজীপুর কোম্পানি কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, গত ১৬ মে (শনিবার) টঙ্গী মধুমিতা রেলগেট এলাকার একটি ময়লার স্তূপ থেকে চাঁদনী নামের প্রথম শ্রেণির মাদরাসার ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই শিশুকে ধর্ষণের পর গলা টিপে এবং দুই পায়ে আঘাত করে নির্মমভাবে হত্যা করা হয় বলে তদন্তে ও ময়নাতদন্তে উঠে আসে। চাঞ্চল্যকর ওই ঘটনায় মো. নিলয় (১৫) নামের এক তরুণকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

গত রোববার (১৭ মে) রাত আড়াইটার দিকে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল টঙ্গী পূর্ব থানাধীন রেলস্টেশন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। পরদিন গ্রেফতার নিলয় আদালতে সে ও আবু সুফিয়ানসহ ওই শিশুকে ধর্ষণ করে মর্মে জবানবন্দি দেয়। তদন্তে জানা যায়, শুধু এই শিশু নয়, আরও ৪/৫টি ধর্ষণের ঘটনা সাথে জড়িত এই আবু সুফিয়ান।

লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, গ্রেফতার নিলয়ের দেয়া তথ্যে র‌্যাব-১ অভিযানে নামে। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় সুফিয়ান টঙ্গী মধুমিতা রেললাইন এলাকায় বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছে।

ওই তথ্যে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে র‌্যাব-১ অভিযানে যায়। চতুর সুফিয়ান র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি বর্ষণ করে। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়ে। বন্ধুরা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয় সিরিয়াল ধর্ষক আবু সুফিয়ানের মরদেহ। একই ঘটনায় এএসআই আতোয়ার ও কনস্টেবল সেলিম নামে দুই র‌্যাব সদস্য আহত হয়।

সোনালীনিউজ/এইচএন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue