বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

শাহনূরের ‘চিটার’

বিনোদন প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, বুধবার ০৩:১৭ পিএম

শাহনূরের ‘চিটার’

ঢাকা : চিত্রনায়িকা শাহনূর ব্যস্ত বিভিন্ন কাজে। অভিনয়ে পুরোদস্তুর সময় দিচ্ছেন এখন। কেবল বড়পর্দাতেই নয়। অভিনয় করছেন খণ্ডনাটকেও। এ ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে নিজেকে জড়িত রেখেছেন।

 এ কারণে ধারাবাহিক নাটকে বলা যায় খুব কমই কাজ করেন চিত্রনায়িকা শাহনূর। দীর্ঘদিন পর তিনি নতুন একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। নাটকের নাম ‘চিটার’। নাটকটি রচনা করেছেন আপন হাসান এবং নির্মাণ করছেন তন্ময় পারভেজ। এরই মধ্যে ধারাবাহিকটির শুটিংয়ের প্রথম লটে অংশ নিয়েছেন তিনি। গেল ৬ সেপ্টেম্বর তিনি রাজধানীর অদূরে পুবাইলের একটি শুটিংবাড়িতে এই নাটকের শুটিংয়ে অংশ নেন।

নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে শাহনূর বলেন, ‘শেষ কবে ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করেছি তা স্পষ্ট মনে নেই। তবে ইচ্ছে তো করেই ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করতে। কিন্তু গল্প এবং চরিত্র যদি আমার সঙ্গে মানানসই না হয়, তাহলে তো করতে আগ্রহ জন্মায় না। চিটার নাটকটির গল্প সমসাময়িক এবং আমার চরিত্রটিও আমার কাছে ভালো লেগেছে। যে কারণে কাজটি করেছি। আশা করছি নাটকটি প্রচারে এলে দর্শকের ভালো লাগবে।’

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ১৭ মার্চ থেকে ‘মুজিববর্ষ’ উদ্যাপন শুরু হয়েছে। যদিওবা করোনার কারণে মুজববর্ষ নিয়ে যে পরিকল্পনা ছিল সেভাবে উদ্যাপিত হচ্ছে না, তারপরও জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মুজিববর্ষ সীমিত পরিসরে হলেও উদ্যাপন করার চেষ্টা করা হচ্ছে নানান আঙ্গিকে। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকীতে মুজিববর্ষের বিশেষ ওভিসি (অনলাইন বিজ্ঞাপন) ‘মুজিব তোমায় কথা দিলাম’ ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্তির থিম নিয়ে ওভিসিটির কাহিনি, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন নির্মাতা গাজী ফারুক। এতে কেন্দ্রীয় একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়িকা শাহনূর। এই কাজটির জন্যও বেশ সাড়া পাচ্ছেন এ তারকা।

শাহনূর চলচ্চিত্রে ও নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি বর্তমানে আওয়ামী রাজনীতিতেও বেশ সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। শাহনূর বলেন, ‘অভিনয় আমার নেশা আর রাজনীতি আমার আদর্শ।’

শাহনূরের বাবা সৈয়দ মোজাফফর আলী একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। তাই মুক্তিযুদ্ধের ছবিতে অভিনয়ে করতে অন্যরকম ভালোলাগা কাজ করে তার। ছোটবেলা থেকে ছড়া, গান, নাচের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকা শাহনূর টেলিভিশন ম্যাগাজিন পত্রিকার ফটোসুন্দরী নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর ডাক পান চলচ্চিত্রে।

চিত্রনায়ক রুবেলের বিপরীতে ২০০০ সালে ‘জিদ্দি সন্তান’ ছবির মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষেক হয় এ পর্দাকন্যার। ছবিটি পরিচালনা করেন জিল্লুর রহমান ময়না। এরপর তার অভিনীত ৫০টির মতো ছবি মুক্তি পেয়েছে।

প্রয়াত মান্না, শাকিব খান, রিয়াজ, রুবেলসহ অনেক জনপ্রিয় নায়কের বিপরীতে অভিনয় করেছেন তিনি। বড়পর্দার পাশাপাশি ছোটপর্দায়ও নিয়মিত অভিনয় করছেন শাহনূর।

বাণিজ্যিক ছবির নায়িকা শাহনূর মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্পের পাশাপাশি অভিনয় করেছেন বিকল্পধারার কিছু ছবিতেও। আর সামনেও নারীপ্রধান গল্প বা একটু ভিন্ন ধরনের কাহিনির ছবিতে কাজের আগ্রহ আছে বলে জানালেন তিনি।

শাহনূর এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘ভিন্ন ধরনের কাজ এখন করতে চাই। আরও ভালোভাবে বলতে গেলে শাবানা আপার ‘ভাত দে’, ববিতা আপার ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ কিংবা মৌসুমী আপার ‘মেঘলা আকাশ’ এ ধরনের ভিন্ন গল্পের ছবি এবং চরিত্রে কাজ করতে আগ্রহী আমি। এ ধরনের কাজ এখন খুবই কম হচ্ছে। সামনে এমন কিছু কাজের প্রস্তাব পেলে আমি অবশ্যই করতে চাই।’

অভিনয়ের বাইরে শাহনূর সেবামূলক প্রতিষ্ঠান কিডনি ফাউন্ডেশন, মানবধিকার সোসাইটির সঙ্গে কাজ করেন বলেও জানান। চলচ্চিত্রাঙ্গনে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছেন এই অভিনেত্রী। বর্তমানে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বাজার খুব একটা ভালো না। তবে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র আবারো ঘুরে দাঁড়াবে বলে মনে করেন শাহনূর।

সোনালীনিউজ/এমটিআই