বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

শ্রীলঙ্কায় মুসলিমবিরোধী সহিংসতায় নিহত ১, কারফিউ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ মে ২০১৯, মঙ্গলবার ০১:২২ পিএম

শ্রীলঙ্কায় মুসলিমবিরোধী সহিংসতায় নিহত ১, কারফিউ

ঢাকা : শ্রীলঙ্কার উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশে দ্বিতীয় দিনের মতো মসজিদ ও মুসলিমদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলার ঘটনায় দাঙ্গায় একজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার (১৩ মে) এ ঘটনার সময় পুলিশ উচ্ছৃঙ্খল জনতাকে লক্ষ্য করে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে। উদ্ভুত পরিস্থিতি এড়াতে দেশজুড়ে রাতব্যাপী কারফিউ জারি করে দেশটির প্রশাসন।

গত ২১ এপ্রিল খ্রিস্টানদের ইস্টার সান্ডের দিন জঙ্গিদের আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৫৩ জন নিহত হয়। এ হামলায় মুসলিমদের দায়ী করে তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা করা হয়। এরপর থেকে সংখ্যলঘু মুসলিমদের প্রতি নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে এমন আশঙ্কা থেকে সোশ্যালমিডিয়া বন্ধসহ বেশকিছু পদক্ষেপ নেয় দেশটির সরকার।

ইস্টার সান্ডের হামলার পর দ্বীপদেশটিতে এটাই সবচেয়ে বড় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের মারাউয়িলি হাসপাতাল থেকে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ছুরিকাহত ৪২ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয় এক বাসিন্দা যিনি ছুরিকাহত ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিতে সাহায্য করেছেন, নিহতের নাম মোহাম্মদ আমীর মোহাম্মদ সালি বলে জানিয়েছেন।

উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের মুসলিম অধ্যুষিত অংশগুলোর বাসিন্দারা জানিয়েছেন, উচ্ছৃঙ্খল জনতা দ্বিতীয় দিনের মতো মসজিদগুলোতে হামলা চালিয়েছে, তাদের দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তছনছ করেছে।

প্রতিহিংসার আশঙ্কায় পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে কোট্টামপিটিয়া এলাকার এক বাসিন্দা টেলিফোনে রয়টার্সকে বলেছেন, “কয়েকশ দাঙ্গাকারী ছিল, পুলিশ ও সেনাবাহিনী শুধু দেখছিল। তারা আমাদের মসজিদগুলো পুড়িয়ে দিয়েছে এবং মুসলিমদের মালিকানাধীন বহু দোকান গুড়িয়ে দিয়েছে।

“আমরা বাড়ি থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ আমাদের ভিতরে অবস্থান করতে বলে।”

এমন অবস্থায় পুলিশ দেশজুড়ে রাত ৯টা থেকে ভোর ৪টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করেছে বলে মুখপাত্র রুয়ান গুনাসেকেরা জানিয়েছেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue