রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭

সুস্থ হয়েই স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৮ মে ২০২০, শুক্রবার ০৬:০৬ পিএম

সুস্থ হয়েই স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা: ইতিহাস গড়ে বিবাহবিচ্ছেদ করলেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। অবশেষে ভারতীয় বংশোদ্ভূত স্ত্রী মারিনা উইলারের সাথে জনসনের বিবাহবিচ্ছেদের প্রক্রিয়ায় আইনি সিলমোহর পড়ল। আর এর সাথে ২৫০ বছর পর ব্রিটিশ ইতিহাসের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রেকর্ড গড়লেন জনসন। তিনই প্রথম ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী, যিনি পদে থাকাকালীন সঙ্গীনিকে ডিভোর্স দিলেন। প্রসঙ্গত, সদ্য করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে ফিরেছেন বরিস জনসন। নিজেই জানিয়েছেন, তার ‘মৃত্যুসংবাদ ঘোষণার জন্য প্রস্তুত ছিলেন চিকিৎসকরা।’

১৯৯৩ সালে প্রথম স্ত্রী অ্যালেগ্রা মোস্টাইন আওয়েনের সাথে বিবাহবিচ্ছেদের মাত্র ১২ দিনের মধ্যে ম্যারিনা উইলারকে বিয়ে করেন বরিস। ম্যারিনার বাবা একজন সাংবাদিক এবং তার মা ভারতীয় বংশোদ্ভূত। ইউরোপীয় এক স্কুলে একসঙ্গে পড়াশোনাও করেছিলেন জনসন ও উইলার। জনসন ও উইলারের দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। ২০১৮ থেকে তাদের বিবাহবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল। ২ বছর পর তা শেষ হল।

উইলারের সঙ্গে ডিভোর্সের ফলে এবার প্রেমিকা তথা বাগদত্তা ক্যারি সাইমন্ডসকে বিয়ের রাস্তায় কোনো বাধা রইল না জনসনের। গত ২৯ এপ্রিল লন্ডনের এক হাসপাতালে ছেলের জন্ম দিয়েছেন বরিস জনসনের প্রেমিকা ক্যারি। প্রসঙ্গত, জনসনের আরও পাঁচ সন্তান রয়েছে।

জনসনের আগে ১৭৬৯ সালে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন অগাস্টাস ফিটজরয়।

সোনালীনিউজ/টিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue