বুধবার, ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যা

নড়াইল প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৩ জুন ২০১৯, সোমবার ০৬:৩৫ পিএম

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের পর হত্যা

নড়াইল: জেলার লোহাগড়ায় নুপুর খানম নামে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে। রোববার (২ জুন) রাতে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে পুলিশ ওই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

এ ঘটনায় নুপুরের বাবা বাদী হয়ে সোমবার (৩ জুন) দুপুরে লোহাগড়া থানায় অভিযোগ দাখিল করেছেন। পুলিশ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মিনি বেগম নামে এক নারীকে আটক করেছে।

নিহত নুপুর উপজেলার রায় গ্রামের হিরু বিশ্বাসের মেয়ে। সে আরকেকে জনতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

নিহতের চাচা বাচ্চু বিশ্বাস জানান, ছয়দিন আগে নুপুর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। রোববার সন্ধ্যার পর খবর পেয়ে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে নুপুরের মরদেহ পান তারা।

তার অভিযোগ, ব্রামনডাংগা গ্রামের ওবায়দুর রহমান মানিকের ছেলে রবিউল ইসলাম রুবেল ও জালালসী গ্রামের চান সরদারের ছেলে আজাদ সরদার নুপুরকে অপহরণ করে। তারা লোহাগড়া বাজারের পোদ্দারপাড়া গ্রামের মিনি বেগমের বাসায় রেখে গণধর্ষণ করে।

তবে মিনি বেগম বলেন, চার-পাঁচদিন আগে নুপুর আমার বাড়ি ভাড়া নিয়েছিল। রোববার (২ জুন) সন্ধ্যায় নুপুর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি।

লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, হাসপাতালে আনার আগেই নুপুরের মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া থানার ওসি মোকাররম হোসেন বলেন, মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোনালীনিউজ/এমএইচএম

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue