সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮, ৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

হুট করে জাতির চিরায়ত চরিত্র বদলানো কি এতই সহজ?

শারফুদ্দিন আনাম | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৭ অক্টোবর ২০১৮, রবিবার ১২:১১ পিএম

হুট করে জাতির চিরায়ত চরিত্র বদলানো কি এতই সহজ?

এই দেশে অনেকের শিক্ষাজীবন শুরু হয়েছে মিথ্যা দিয়ে। যেটা টের পাওয়া যায় জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে। আমি নিজেও সেই অসভ্যতার বলী। এ কারণে বিশেষভাবে না ঠেকলে কখনও সার্টিফিকেটের জন্ম তারিখ কোথাও বলি না।

ক্লাস এইটের বৃত্তি পরীক্ষার সময় হঠাৎ একদিন স্কুলে গিয়ে জানতে পারলাম আমার জন্ম সেপ্টেম্বরে না, ডিসেম্বরে। সালটাও আর আগেরটা নেই। মাথা আউলানো বরাবরই। সবাই যেখানে বয়স কমানোয় খুশি হলো, আমি গিয়ে বিনয়ী সুরে প্রতিবাদ করলাম ক্লাসটিচারের কাছে। ফলাফল, জোরা বেতের সিঙ্গেল বারি হাতের তালুতে।

নিজের ছেলের বেলায় তেমনটা হতে দেইনি। যদিও ঐ জাতীয় পরামর্শ এসছে অসংখ্য, কিন্তু কানে তুলিনি। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছি, যে সন্তান জন্মক্ষণের ঘোরপ্যাঁচে জীবন শুরু করলো চাকরিজীবনে একটা সুবিধা পাবার আশায়, যে শৈশব থেকেই জানলো যে, সুবিধার জন্য ঘোরপ্যাঁচ আবশ্যক, তাকে কিভাবে বা কোনপথে মোরালিটির শিক্ষা দেয়া যায়?

প্রতিদিন দুর্নীতি বা অরাজকতা নিয়ে কতোকতো লিখি আমরা। গোড়ার শেকড়গুলো নিয়ে কেউ বলে না। হুট করে একটা জাতির চিরায়ত চরিত্র বদলানো কি এতই সহজ?

লেখক- শারফুদ্দিন আনাম, সহযোগী বার্তা সম্পাদক ও সিনিয়র প্রেজেন্টার, একাত্তর টেলিভিশন।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন


*** প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব ভাবনার প্রতিফলন। সোনালীনিউজ-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে লেখকের এই মতামতের অমিল থাকাটা স্বাভাবিক। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য সোনালীনিউজ কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না। এর দায় সম্পূর্ণই লেখকের।