বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬

১০৪ বছরের সেই বৃদ্ধার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার ১২:২৫ পিএম

১০৪ বছরের সেই বৃদ্ধার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

ঢাকা : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ১০৪ বছর বয়সেও কোন প্রকার সরকারি সাহায্য বা ভাতা না পাওয়া সেই বৃদ্ধা সখিনা বেগম সকল দায় দায়িত্ব নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

উপজেলার বারইখালী ইউনিয়নের উত্তর সুতালড়ী গ্রামের মৃত আফেল উদ্দিনের স্ত্রী সখিনা বেগম ১০৪ বছর বয়সেও পাননি কোন প্রকার সরকারি সাহায্য। বিভিন্ন গণমাধ্যমে এমন খবর প্রচারের পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান রোববার বিকেলে ওই বৃদ্ধা নারীকে খুঁজে তার অফিসে নেন। এ সময় তিনি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকেও ডেকে সখিনা বেগম নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড ইস্যু করান।
 

সখিনা বেগমের কথিত মতে তার বয়স এখন ১০৪ বছর। স্বামী মারা গেছেন ১৯৭৩ সালে। ৪ ছেলে মেয়ে যে যার মত বিভিন্ন শহরে দিনমজুরি করে সংসার চালায়। বর্তমানে ওই গ্রামে বসবাস করলেও তার নিজের সহায়-সম্পদ বলতে কিছইু নেই। থাকেন দরিদ্র নাতি সবুজ শেখের ঘরে। বিভিন্ন জনের দেয়া সাহায্যে চলে তার নৈমিত্তিক খরচ।

সখিনা বেগমের ঘটনাটি সোনালীনিউজে প্রচার হলে বিষয়টি নজরে আসে বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামানের।

রোববার বিকেলে তাকে নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে নিয়ে সম্মানের সঙ্গে হাতে তুলে দেয়া হয় বয়স্ক ভাতার কার্ড, ৩০ কেজি চাল ও দুটি শাড়ি।  

নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান এ সময় বলেন, ‘সখিনা বেগম এমন বৃদ্ধা বয়স পর্যন্ত সাহায্যের আওতায় আসেনি এটা দুঃখজনক। এখন থেকে তার সকল দায়িত্ব আমি নিলাম’। বিষয়টি নজরে আনার জন্য তিনি গণমাধ্যম কর্মীদেরকে ধন্যবাদ জানান।

সোনালীনিউজ/এমআরআইএম/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue