বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯, ৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

১১৯ বয়সে চশমা ছাড়াই পড়েন খবরের কাগজ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার ১২:৩৪ পিএম

১১৯ বয়সে চশমা ছাড়াই পড়েন খবরের কাগজ

কুড়িগ্রাম : পায়ে হেঁটে চলাচল করেন। ওষুধও খেতে হয় না তাকে। এখনো তিনি চশমা ছাড়াই পবিত্র কুরআন শরীফ পড়তে পারেন। কৌতুহল জেগেছে তার সুস্থ ও বেঁচে থাকার রহস্য নিয়ে। জোবেদ আলী। বাড়ি কুড়িগ্রামে। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী ১৯০০ সালে তার জন্ম। সে হিসেবে বয়স ১১৯ বছর।

জোবেদ আলী বলেন, কখনো ফজরের নামাজ কাজা করিননি। নামাজ পড়েই কুরআন তেলওয়াত করি। আল্লাহ হয়তো এতে খুশি হয়ে আমাকে সুস্থ রেখেছেন। আল্লাহর হাজার শোকর।

জোবেদ আলী জানান, সারাজীবন তিনি নিজের দীঘির মাছ, বাড়িতে পালা হাস-মুরগির গোশ, দুধ ও ডিম খেয়েছেন। আবাদী জমির ধান, খাঁটি ঘি, সরিষার তেল ও সবুজ শাক-সবজি খেয়েছেন তিনি। সর্দি জ্বর ছাড়া অন্য কোনো বড় রোগে আক্রান্ত হননি।

আধুনিক বিজ্ঞান বলে, পরিমিত ও টাটকা খাবার খেলে সুস্থ থাকা যায়। এছাড়া নিয়মিত ফজরের নামাজ মসজিদে পড়তে হলে রাতে দ্রুত ঘুমাতে হয়। রাতে নিরবিচ্ছিন্ন দীর্ঘ ঘুম রোগ ব্যাধি থেকে মুক্ত রাখে। সকালের মিষ্টি রোধ গায়ে লাগলে তৈরি হয় ভিটামিন ডি। সার্বিকভাবে জোবেদ আলী এমন জীবনাচারণে অভ্যস্ত ছিলেন যা তাকে শতবর্ষী আয়ু দিয়েছে।

তবে জোবেদ আলীর দাবি জাতীয় পরিচয় পত্রে তার জন্ম তারিখ ১৯০০ সালের ২৫ অক্টোবর হলেও বয়স তার আরো বেশি। স্ত্রী ফয়জুন নেছার বয়স ৮৭ বছর। তিন পুত্র ও চার কন্যার জনক-জননী তারা।  

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue