সোমবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৮, ৫ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

২০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ বেনজেমার

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৮ নভেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার ১২:৩৮ পিএম

২০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ বেনজেমার

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: নতুন কোচ সানতিয়াগো সোলারির অধীনে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জ্বলে উঠলেন করিম বেনজেমা। ভিক্টোরিয়া প্লাজেনের বিপক্ষে জোড়া গোল করে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ২০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ করলেন এই ফ্রেঞ্চম্যান। আর তাতেই ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত হলো প্লাজেন। সোলারির অধীনে এটি ছিল রিয়ালের প্রথম ইউরোপীয়ান ম্যাচ। এই জয়ে চার ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে রিয়াল দৃঢ়ভাবেই গ্রুপ-জি’র শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে।

বুধবার রাতে অনুষ্ঠিত ম্যাচের ২০ মিনিটে একক প্রচেষ্টায় রিয়ালকে এগিয়ে দেন বেনজেমা। ৩৭ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন বেনজেমা। অবশ্য এদিন মাদ্রিদের ইনজুরিগ্রস্ত রক্ষণভাগকে কাল অবশ্য খুব একটা বিপদে ফেলতে পারেনি স্বাগতিক প্লাজেন। তবে ৯ মিনিটে প্যাট্রিক রোসোভিস্কর ক্রস বারে লেগে ফেরত না আসলে তখনই হয়ত এগিয়ে যেতে পারতো চেক রিপাবলিকের চ্যাম্পিয়ন দলটি। ১৪ মিনিটে রামোসের চ্যালেঞ্জে হাভেলের নাকে আঘাত লাগে।

তারপরেও রক্তাক্ত নাক নিয়ে তিনি কিছুক্ষণ মাঠে ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৩৮ মিনিটে এই মিডফিল্ডারকে পরিবর্তন করতে বাধ্য হন প্লাজেন বস ভারবা। তার আগেই অবশ্য মাদ্রিদ ম্যাচের নিয়ন্ত্রন নিজেদের করে নেয়। ২০ মিনিটে অনেকটা একক প্রচেষ্টায় বেনজেমা প্লাজেন গোলরক্ষক এ্যালেস রুসকার পায়ের মাঝ দিয়ে নিজের মাইলফলক গোল আদায় করে মাদ্রিদকে এগিয়ে দেন। তিন মিনিট পর ক্রসের কর্ণার থেকে ক্যাসেমিরো ব্যবধান দ্বিগুন করেন। ৩৭ মিনিটে বেলের সহায়তায় বেনজেমা মাদ্রিদের হয়ে ২০১তম গোল পূরণ করেন। ৪০ মিনিটে আবারো ফ্রেঞ্চ তারকা বেনজেমাই রিয়ালের হয়ে চতুর্থ গোলে ভূমিকা রেখেছেন। তার সহায়তায় বেল দারুন এক ভলিতে মাদ্রিদের ব্যবধান ৪-০’তে নিয়ে যান।

দ্বিতীয়ার্ধে রামোস ও বেনজেমার স্থানে সোলারি জাভি সানচেজ ও ভিনসিয়াস জুনিয়রকে মাঠে নামান। এটি ছিল ব্রাজিলিয়ান তরুন ভিনসিয়াসের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অভিষিক্ত ম্যাচ। আর প্রথম ম্যাচেই তিনি নিজেকে প্রমান করেছেন। ৬৭ মিনিটে তার অসাধারণ পাসেই ক্রুস মাদ্রিদের হয়ে পঞ্চম গোলটি করেন। লুকাস ভাসকুয়েজের গোল অফ-সাইডের কারনে বাতিল না হলে ও স্টপেজ টাইমে বেল গোলের সুযোগ নষ্ট না করলেও মাদ্রিদের জয়ের ব্যবধান হয়ত আরো বাড়তে পারতো। তবে গুরুত্বপূর্ণ এই তিন পয়েন্টে মাদ্রিদের শেষ ১৬’তে যাওয়া যে এখন সময়ের ব্যপারে তা অনেকটা নিশ্চিত করে বলাই যায়।

রিয়ালের সাথে রোমাও চার ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। সে কারণেই আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে স্তাদিও অলিম্পিকোতে এই দুই দলের ম্যাচেই নির্ধারিত হয়ে যাবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে কোন দল নক আউট পর্বে যাচ্ছে। সোলারি অবশ্য জয়ের লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামবে। তারপরেও পারফরমেন্স নিরিখে রোমার বিপক্ষে ম্যাচটা যে মোটেই সহজ হবে না তা অনুমেয়।

মাদ্রিদের হয়ে ২০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ করে বেনজেমা ক্লাবের ইতিহাসে সপ্তম খেলোয়াড় হিসেবে এই কৃতিত্ব দেখালেন। তার আগে এই কৃতিত্ব অর্জনের মধ্যে অন্যতম হলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো, রাওল, আলফ্রেডো ডি স্টিফানো। গত দুই মাসে গোলমুখে বারবার ব্যর্থ হওয়া এই ফ্রেঞ্চ তারকা সব ধরনের প্রতিযোগিতায় শেষ পাঁচটি ম্যাচে চার গোল করেছেন।

ইউরোপীয়ান প্রতিযোগিতায় কোন চেক দলের বিপক্ষে এ্যাওয়ে ম্যাচেই এটাই কোন স্প্যানিশ দলের সবচেয়ে বড় জয়।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই