মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭

২৪ কিলোমিটার পাহাড়ি রাস্তা হেঁটে নিজ এলাকায় মুখ্যমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার ১১:০২ এএম

২৪ কিলোমিটার পাহাড়ি রাস্তা হেঁটে নিজ এলাকায় মুখ্যমন্ত্রী

অরুনাচলের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু

ঢাকা : ভারতের পাহাড়ি রাজ্য অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু নিজের সংসদীয় আসন সফর করেছেন। তাওয়াং জেলার মুক্তো আসন থেকে নির্বাচিত এই আইনপ্রণেতা সেখানকার একটি গ্রামের বাসিন্দাদের দেখতে যেতে ১১ ঘন্টা হেঁটে প্রায় ২৪ কিলোমিটার পাহাড়ি রাস্তা পার হয়েছেন তিনি। দুর্গম উপত্যকা আর বনাঞ্চল পেরিয়ে তাওয়াং থেকে প্রায় ৯৭ কিলোমিটার দূরবর্তী লুগুথাং গ্রামে পৌঁছান ৪১ বছর বয়সী মুখ্যমন্ত্রী। সম্প্রচারমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ১৪ হাজার পাঁচশ’ ফুট উপরে অবস্থিত গ্রাম লুগুথাং। পাহাড় চূড়ায় অবস্থিত গ্রামটিতে ৫০ জন বাসিন্দা রয়েছেন। দশটি বাড়িতে বসবাস করেন তারা। কোনও রাস্তা না থাকায় গ্রামটিতে পৌঁছানোর একমাত্র উপায় পায়ে হেঁটে পাহাড়ে চড়া।

গ্রামের বাসিন্দাদের সঙ্গে দেখা করে বৃহস্পতিবার তাওয়াং ফিরে আসেন অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু। এক টুইট বার্তায় সেদিনই তিনি লেখেন, ‘কারপু-লা থেকে লুগুথাং পাড়ি দেওয়া ছিল কষ্টকর যাত্রা। অগ্রবর্তী এলাকায় বসবাসকারী শেষ মানুষটির কাছে যৌথ কর্মসূচির সুফল পৌঁছানো নিশ্চিত করতে লুগুথাং গ্রামের বাসিন্দাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।’

লুগুথাং গ্রামে পৌঁছাতে পাড়ি দিতে হয় দৃষ্টি নন্দন কারপু লা পর্বত এবং বেশ কয়েকটি প্রাকৃতিক লেক। গ্রামটিতে পৌঁছানোর পরদিন সেখানে একটি বৌদ্ধমন্দির স্থাপনের কাজের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। সে সময় তার সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন সেখানকার এমএলএ তেসারিং তাসি, গ্রামবাসী এবং তাওয়াং বৌদ্ধআশ্রমের পন্ডিত।

পেমা খান্ডু

বৌদ্ধমন্দিরটির নামকরণ করা হয়েছে পেমা খান্ডুর বাবা এবং রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী দর্জি খান্ডুর নামে। ২০১১ সালের ৩০ এপ্রিল তাওয়াং থেকে ইটানগর ফেরার পথে লুগুথাং গ্রামের কাছে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে মারা যান দর্জি খান্ডু।

তাওয়াং এর একটি সূত্র জানিয়েছে, লুগুথাংয়ের একটি বাড়িতে দুই রাত্রি যাপনের পর তাওয়াং ফিরে আসেন মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্ডু।

লুগুথাং গ্রামটিতে মূলত ইয়াক পালনকারী যাযাবর জনগোষ্ঠীর বসবাস। গ্রীষ্মকালের কয়েকটি মাস তারা হিমাল।

সোনালীনিউজ/এএস

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue