মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

৭০-৮০ রানের ইনিংস খেলতে হবে বললেন ডমিঙ্গো

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার ০৫:৪৩ পিএম

৭০-৮০ রানের ইনিংস খেলতে হবে বললেন ডমিঙ্গো

ঢাকা: দিল্লিতে ব্যাটসম্যানরা দারুন কিছু করে দেখালেও রাজকোটে সেটি করে দেখাতে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। সবাই একই ভুল করেছেন। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মুশফিকুর রহিমের ব্যাটে মিলেছিল বড় রান, যার ফল এসেছে ঘরে। বাকি সবাই ঘুরপাক খাচ্ছেন ত্রিশের ঘরে। দ্বিতীয় ম্যাচে চারজন ব্যাটসম্যানেরই হয় একই দশা। যার প্রভাব পড়েছে ম্যাচেও। কেন এমন হচ্ছে, কোচ রাসেল ডমিঙ্গো দিলেন ব্যাখ্যা।

রাজকোটে দ্বিতীয় ম্যাচে উইকেট ছিল রানে ভরা। আগে ব্যাট পেয়ে শুরুটা দারুণ করে বাংলাদেশ। কিন্তু ভালো শুরুটা মাটি হয়েছে ইনিংস টানতে না পারার ব্যর্থতায়। সেদিন একাধিক জীবন পেয়েও লিটন দাস আউট হন ২১ বলে ২৯ করে। টানা তিন চারে ঝলমলে শুরু পেয়েও নাঈম সুযোগ হাতছাড়া করেন। সময় বাড়তে ডট বলে চাপ বাড়িয়ে ফেরেন ৩০ বলে ৩৬ করে।

সৌম্যর দোষটা আরও চড়া। রাজকোটে সেদিন খেলছিলেন দারুণ। বল লাগছিল মাঝ ব্যাটে। বড় সংগ্রহের জন্য আশার বাতিঘর ছিলেন তিনিই। কিন্তু যুজভেন্দ্র চেহেলকে ভুল সময়ে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে স্টাম্পিং হয়ে ফেরেন ২০ বলে ৩০ রান করে। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহও শেষটা করতে না পেরে ফেরেন ওই ত্রিশ রানেই।
সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচের আগে ব্যাটসম্যানদের ইনিংস বড় খেলতে না পারা একটা উদ্বেগের কারণ মনে করেন বাংলাদেশের কোচ,  ‘হ্যাঁ আমরা কাল রাতে এটা নিয়ে কথা বলেছি। প্রথম ম্যাচে মুশফিক বড় রান করায় আমরা জিতেছি। রোহিত বড় রান করায় তারা জিতেছে। আমরা দুটো ৩০ রানের ইনিংস করেছি। কিন্তু কেউ একজন যেন ৭০-৮০ রান করতে পারে, আমাদের এটা নিশ্চিত করতে হবে।’

ত্রিশ রানের মাঝারি ইনিংস ফিফটি ছাড়িয়ে যাচ্ছে না, কেন এমন হচ্ছে? ডমিঙ্গো জানালেন টেকনিক নয় গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ভুল চিন্তা থেকেই বিপদ ডেকে আনছেন ব্যাটসম্যানরা, ‘হয়ত তারা উত্তর দিতে পারবে (হাসি)। তারা নিশ্চয়ই বড় রান করার চেষ্টা করছে। কিন্তু ইনিংসের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে কোন ভুল চিন্তায় আউট হয়ে যাচ্ছে। তাদের এটা নিয়ে কাজ করতে হবে এবং ইনিংসকে বড় করতে হবে। তারা তো আর আউট হতে চেষ্টা করে না। নিজেদের ইনিংসের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে তারা ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে নিচ্ছে। আমার মনে হয় না টেকনিকে কোন সমস্যা আছে। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে তাদের উন্নতি করতে হবে।’

সোনালীনিউজ/আরআইবি/এমএএইচ