শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬

৯৯ বিশ্বকাপে নান্নুর হয়ে কথা বলল ব্যাট

রবিউল ইসলাম বিদ্যুৎ | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২২ মে ২০১৯, বুধবার ০৫:৫৭ পিএম

৯৯ বিশ্বকাপে নান্নুর হয়ে কথা বলল ব্যাট

ফাইল ছবি

ঢাকা: ১৯৯৭ সালে আইসিসি ট্রফি জয়ের পর গোটা বাংলাদেশ আক্রান্ত হয় ক্রিকেট জ্বরে। ফুটবল ছেড়ে প্রত্যন্ত গ্রামে শিশু-কিশোররা ছুটতে থাকে ব্যাট-বল নিয়ে। মানুষের মাঝে তৈরি হয় অন্যরকম ক্রিকেট উন্মাদনা। এরই মাঝে চলে আসে ১৯৯৯ বিশ্বকাপ। কিন্তু টিম ম্যানেজমেন্টের ভুতুড়ে সিদ্ধান্তে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়েন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।

গোটা বাংলাদেশই নির্বাচকদের এই সিদ্ধান্তে হতভম্ব হয়ে যায়। দেশের বেশ কয়েকটি জায়গায় মানববন্ধনও হয় নান্নুর জন্য। তাছাড়া দেশের সংবাদমাধ্যমে তাঁকে নিয়ে একের পর এক খবর প্রকাশিত হতে থাকে। অনেকটা চাপে পড়ে নান্নুকে দলে ফেরাতে বাধ্য হয় টিম ম্যানেজমেন্ট। দলে সুযোগ পেয়ে মুখে কিছু না বললেও অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার উপেক্ষার জবাব দেন ব্যাট হাতে।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের গ্রুপে একমাত্র দূর্বল প্রতিপক্ষ ছিল স্কটল্যান্ড। তাদের বিপক্ষে একমাত্র জয়ের আশা নিয়ে দেশ ছেড়ে গিয়েছিল আমিনুল-আকরামরা। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাট করতে গিয়ে গলদঘর্ম হয়ে পড়ে বাংলাদেশ। ২৬ রানের মধ্যে ড্রেসিংরুমে ফিরে যান টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যান খালেদ মাসুদ (০), মেহেরাব হোসেন (৩), ফারুক আহমেদ (৭), আমিনুল ইসলাম (০) এবং আকরাম খান (০)।

শোকে মূহ্যমান হয়ে পড়ে গোটা বাংলাদেশ। বিশ্বকাপে যে দলের সঙ্গে জয় আশা করা হয়েছিল সেটা যে হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে! না, শেষ পর্যন্ত ধ্বংসস্তুপ থেকে বাংলাদেশকে টেনে তোলেন সেই নান্নু। যাকে বিশ্বকাপের দল থেকেই ছেঁটে ফেলার ষড়যন্ত্র হয়েছিল!

সে সময় নান্নু সম্পর্কে একটা কথা চালু ছিল, উইকেটে দাঁড়িয়ে গেলে তাকে ফেরানো কঠিন। ঘরের মাঠ এডিনবরায় স্কটিশ বোলাররাও সেদিন সেটা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছিল। এক  প্রান্তে নান্নু খেলে গেলেন তার মতো করে। কেবল তার কল্যাণেই ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে বাংলাদেশ তুলতে পেরেছে ১৮৫ রান। নান্নু অপরাজিত থাকলেন ৬৮ রানে। এই রান তিনি করেছেন ১১৬ বলে, ছয় চারের সাহায্যে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান এসেছে নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের (৩৬) ব্যাট থেকে। বাকিদের মধ্যে বলার মতো রান করেছেন লেগ স্পিনার এনামুল হক মনি (১৯)। ভাবছেন বাংলাদেশের স্কোর তাহলে ১৮৫ তে পৌঁছাল কিভাবে? মিঃ এক্সট্রা!  সেদিন এক্সট্রা থেকে স্কটিশ বোলাররা দিয়েছেন ৪৪ রান!

১৮৫ রানের পিছু নিয়ে গ্যাভিন হ্যামিল্টন ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন বাংলাদেশকে। ৪৯ রানে স্কটল্যান্ডের ৫ উইকেট পড়ে গেলেও ইংলিশ বংশোদ্ভুত হ্যামিল্টন বাংলাদেশের কাছ থেকে জয় ছিনিয়েই নিতে যাচ্ছিলেন। বাঁচিয়ে দিয়েছেন বোলার মঞ্জুরুল ইসলাম। দুর্দান্ত এক থ্রোতে হ্যামিল্টনকে (৭১ বলে ৬৩) রান আউট করেন তিনি। মুলতঃ তার বিদায়েই বাংলাদেশের জয় সুনিশ্চিত হয়। বল হাতে ৩ ওভার হাত ঘুরিয়ে ১২ রান দিয়ে এক উইকেট নেন নান্নু। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ফিফটি এবং ম্যান অব দ্য ম্যাচও হন তিনি। পরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও অপরাজিত ৫৩ রানের ইনিংস খেলেন নান্নু।

সোনালীনিউজ/আরআইবি/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue