• ঢাকা
  • বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯

কুড়িগ্রামে বৃষ্টির মতো ঝরছে কুয়াশা


কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি জানুয়ারি ৩, ২০২২, ১০:২৬ এএম
কুড়িগ্রামে বৃষ্টির মতো ঝরছে কুয়াশা

ছবি : সংগৃহীত

কুড়িগ্রাম : ঘন কুয়াশা আর হিমেল হাওয়ায় কুড়িগ্রামে জনজীবনে বেড়েছে দুর্ভোগ। গত তিন ধরে গভীর রাত থেকে বৃষ্টির মতো ঝরছে কুয়াশা। অনেক বেলা পর্যন্ত চারদিক ঢাকা পড়ে থাকে ঘন কুয়াশায়। দুপুর পর্যন্ত দেখা মেলে না সে সূর্যের। কুয়াশার কারণে হেড লাইট জ্বালিয়ে সড়কে চলাচল করে যানবাহন। 

শীত বাড়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন শিশু, বৃদ্ধ, ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষ। শীতের এই পরিস্থিতিতে বেশি বিপদে পড়েছেন গ্রাম ও চরাঞ্চলের গরীব মানুষ। গরম কাপড়ের অভাবে রাতভর প্রচণ্ড ঠাণ্ডার সঙ্গে যুদ্ধ করতে হচ্ছে তাদের। এদিকে প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে মানুষ বেড় হচ্ছে না। একই সঙ্গে সকাল সকাল ফাঁকা হয়ে যায় হাট-বাজার, দোকান-পাঠ।

শ্রমজীবীরা জানান, ঠাণ্ডার কারণে সময়মতো কাজে যোগ দিতে পারছেন না তারা। যদিও পেটের দায়ে কেউ কাজে বের হলেও ঠাণ্ডায় কাজ করতে পারছেন না তারা।

নাগেশ্বরী উপজেলার কেদার ইউনিয়নের বাহের কেদার গ্রামের অটোরিক্সা চালক শাহিন মিয়া জানান, ঘন কুয়াশার কারণে সড়কে চলাচল বিপদজনক হয়ে দাঁড়িয়েছে। হেড লাইট জ্বালিয়েও কিছু দেখা যায় না। এছাড়া সড়কে যাত্রী নেই।

নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, ঠাণ্ডাজনিত রোগ বিশেষ করে জ্বর, সর্দি, কাশি নিয়ে হাসপাতালে অনেকে ভর্তি হচ্ছেন। এদের মধ্যে শিশু ও বয়স্ক রোগীর সংখ্যা বেশি।

কুড়িগ্রাম রাজারহাট আবহাওয়া কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র জানান, গত তিনদিন থেকে জেলার তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে থাকলেও মধ্য রাত থেকেই মাঝারী ধরণের কুয়াশা পড়ছে। সোমবার (৩জানুয়ারী) জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System