• ঢাকা
  • সোমবার, ২৩ মে, ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
নির্বাচনি সহিংসতা

১০ দিনের ব্যবধানে ৬ জন খুন


ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানুয়ারি ৯, ২০২২, ১২:০৬ পিএম
১০ দিনের ব্যবধানে ৬ জন খুন

ঝিনাইদহ : নির্বাচনি সহিংসতায় ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ১০ দিনের ব্যবধানে ছয়জন খুনের ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার (০৮ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বগুড়া ইউনিয়নের বগুড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের আকবর খন্দকারের ছেলে ও সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল বিশ্বাসের কর্মী কৃষক কল্লোল খন্দকার মাঠে পেঁয়াজ লাগাতে গেলে বর্তমান চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শিমুলের কর্মী সমর্থকরা তাকে অতর্কিত কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে।

সারুটিয়া ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান মাহমুদুল হাসান মামুনের কর্মী কাতলাগাড়ী গ্রামের আব্দুর রহিম, কৃত্তিনগর গ্রামের হারান বিশ্বাস, অখিল সরকার ও ভাটবাড়িয়া গ্রামের জসিমসহ চারজনকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী জুলফিকার কাইসার টিপুর সমর্থকরা।

গত ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় কাতলাগাড়ী বাজারে নৌকার অফিসে অতর্কিত এ হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় হারান বিশ্বাস, আব্দুর রহিম, অখিল কুমার, রজব আলীসহ অন্তত ১০ জন গুরুতর আহত হয়। ভেঙে ফেলা হয় নৌকার অফিস ও বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ সকল চেয়ার টেবিল। আহতদের মধ্যে ওই দিন রাতেই হারান বিশ্বাস হাসপাতালে নিহত হন।

২৯ ডিসেম্বর পৌর এলাকার কবিরপুর গ্রামের মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ইকু শিকদারের কর্মী স্বপন নিহত হয়। তাকে ১৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় পৌর মেয়রের ক্যাডার বাহিনী অতর্কিত হামলা চালিয়ে কুপিয়ে আহত করে। এঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়।

৩ জানুয়ারি ভাটবাড়িয়া গ্রামের আরেক নৌকার কর্মী জসিম ও মিলনকে ছুরিকাঘাত করে। এরমধ্যে জসিমকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জানুয়ারি অখিল কুমার ও ৮ জানুয়ারি আব্দুর রহিম নিহত হন। এঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে অন্তত ছয়জন বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System