• ঢাকা
  • শনিবার, ২৫ জুন, ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯

সুনামগঞ্জের ২ শতাধিক বিদ্যালয়ে বন্যার পানি


সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: মে ১৮, ২০২২, ০৯:০৪ পিএম
সুনামগঞ্জের ২ শতাধিক বিদ্যালয়ে বন্যার পানি

সুনামগঞ্জ: ভারতের আসাম ও মেঘালয়ে ভারী বৃষ্টির হলে উজানের ঢলে সুনামগঞ্জের সুরমা নদী উপচে নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে জেলার ২১৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পানি প্রবেশ করেছে। এজন্য ২৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান সাময়িক বন্ধ রেখেছে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ। 

গেল ২৪ ঘণ্টায় সুনামগঞ্জে ভারী বর্ষণ না হলেও আসাম ও মেঘালয়ে ভারী বৃষ্টিতে সুরমা নদীর সুনামগঞ্জ পয়েন্টে বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৩টায় বিপৎসীমার ১৮ সেন্টিমিটার অর্থাৎ ৭. ৯৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল। ঢলের পানি নামা অব্যাহত থাকায় জেলার ছাতক দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমাসহ সকল নদীর পানি উপচে নিম্নাঞ্চলে প্রবেশ করছে। 

বুধবার (১৮ মে) বিকেল ৩টায় সুরমা নদীর ছাতক পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ১৫৮ সেন্টিমিটার অর্থাৎ ৯.৬৯ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। 

ছাতকের নিম্নাঞ্চলে ১৭২, দোয়ারাবাজারে ২৪, সদর উপজেলায় ১৮, তাহিরপুরে পাঁচ এবং শান্তিগঞ্জের একটি স্কুলের যোগাযোগের পথ প্লাবিত হয়েছে। এর মধ্যে ২৮টি স্কুলঘরে পানি ওঠায় সেগুলোতে পাঠদান স্থগিত রাখা হয়েছে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এসএম আব্দুর রহমান জানান, জেলার ২১৬টি বিদ্যালয়ে পানি উঠেছে। এর মধ্যে ২৮টি বিদ্যালয় সাময়িকভাবে বন্ধ করে আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। সেখানে বন্যাকবলিত মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। এছাড়াও ঢলের পানিতে তলিয়ে যাওয়া অন্যান্য বিদ্যালয়েও শিক্ষার্থীরা আসতে না পারায় পাঠদান করা যাচ্ছে না। তবে বিদ্যালয়ের আসবাবপত্র ঠিক রাখার জন্য শিক্ষকরা স্কুলে যাচ্ছেন। 

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামছুদ্দোহা জানান, বুধবার বিকেল ৩টায় সুরমা নদীর সুনামগঞ্জ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ১৮ সেন্টিমিটার, ছাতক পয়েন্টে ১৫৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে যাচ্ছিল। গেল ২৪ ঘণ্টায় দেশে মাত্র দুই মিলিমিটার বৃষ্টিপাত এবং আসাম ও চেরাপুঞ্জিতে ২১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড হয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামী ২৪ ঘণ্টায় বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হতে পারে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System