• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই, ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯

জামিনে বের হয়ে এসে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, গ্রেফতার ৩


নোয়াখালী প্রতিনিধি মে ২২, ২০২২, ০১:১৪ পিএম
জামিনে বের হয়ে এসে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা, গ্রেফতার ৩

গ্রেফতারকৃতরা হলো মো. পাভেল, মো. রাকিব, রিমন

নোয়াখালী: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে জামিনে বের হয়ে এসেই পূর্ব শক্রতার জের ধরে মো. আইমন (২০) নামের এক ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে গলায় ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে চৌমুহনী পৌরসভার ৪নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুল হাই মিলনের ছেলে মো. পাভেল একই ওয়ার্ডের বাচ্চু মিয়ার ছেলে মো. রাকিব (২০) ও আজাদ মিয়ার ছেলে রিমনকে গ্রেফতার করেছে। মো. আইমন বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভার ৫নম্বর ওয়ার্ডের গণিপুর গ্রামের নুরনবীর ছেলে। শনিবার (২১ মে) রাত পৌনে ৮টার দিকে চৌমুহনী বাজারের ডিবি রোডের হোসেন সুপার মার্কেটের সামনে ওই হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বেগমগঞ্জ সার্কেল) নাজমুল হাসান রাজিব জানান, নিহত আইমন চৌমুহনী বাজারে খোলা জায়গায় জুতার ব্যবসা করত। ঘাতক রাকিব তার সহযোগীদের নিয়ে তিন মাস আগে নিহত আইমনের কাছে চাঁদা দাবি করে। তখন আইমন থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশ আইমনের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাকিবকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়। এরপর তিন মাস জেল খেটে রাকিব গত ১৯ মে বৃহস্পতিবার জামিনে বের হয়। 

জামিনে বের হয়ে প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য রাকিব ও তার সহযোগে পাভেল এবং রিমন শনিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে আইমনকে চৌমুহনী বাজারের ডিবি রোডের হোসেন মার্কেটের সামনে গতিরোধ করে। ওই সময় কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে তারা আইমনকে গলায় ছুরিকাঘাত করে গুরুত্বর আহত করে। সেখান থেকে স্থানীয় লোকজন তাকে লাইফ কেয়ার হসপিটালে নেওয়ার পথে আইমন মারা যায়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান রাজিব আরো জানায়, ঘটনার পরপরই তিন ঘাতক পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে পুলিশ হত্যাকান্ডের আধাঘন্টার মধ্যে ঘটনাস্থল থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে একটি জায়গা থেকে তাদের আটক করে এবং হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছোরা উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সোনালীনিউজ/জেএ/এসআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System