• ঢাকা
  • শনিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২০, ৯ কার্তিক ১৪২৭
Sonalinews.com

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে স্বচ্ছতা বাড়াতে বিএসইসির একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত


নিজস্ব প্রতিবেদক সেপ্টেম্বর ৭, ২০২০, ১০:১২ এএম মিউচ্যুয়াল ফান্ডে স্বচ্ছতা বাড়াতে বিএসইসির একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত

ঢাকা: সাধারণ বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। এবার পুঁজিবাজারে সুশাসন নিশ্চিতে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বিষয়ে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মিউচ্যুয়াল ফান্ডে সুসাশন নিশ্চিত করতে রোববার ( ৬ আগস্ট) বিএসইসি এ নির্দেশনা দিয়েছে।

বিএসইসি সূত্র মতে,মিউচ্যুয়াল ফান্ডের সুশাসন নিশ্চিতে আগামীতে কমিশন যে ধরণের তথ্য চাবে তা অ্যাসেট ম্যানেজার, ট্র্যাষ্টি,কাস্টডিয়ান ও উদ্যোক্তাদের সকল তথ্য কমিশনের নিকট দিতে বাধ্য থাকবে।

নির্দেশনাগুলো হলো-

১. মিউচ্যুয়াল ফান্ডে সুসাশন নিশ্চিত করার জন্য অ্যাসেট ম্যানেজার, ট্র্যাষ্টি,কাস্টডিয়ান ও উদ্যোক্তাদের সকল তথ্য কমিশনের নিকট দিতে বাধ্য থাকবে।

২ এর (এ). কমিশন তথ্য না চাইলেও সঠিক সময়ে নিরীক্ষিত আথিক প্রতিবেদন ও ফান্ডের ফিন্যান্সিয়াল অবস্থা, ফান্ডের অবস্থা,বাজারের বিনিয়োগের অবস্থা,ক্যাস ফ্লোর অবস্থা বছর শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে জানাতে হবে।

২ এর (বি). ফান্ডের ৬ মাস মেয়াদ শেষ হলো ৪৫ দিনের মধ্যে বিএসইসিতে সব তথ্যসহ জমা দিতে হবে। একই সাথে গত বছরের একই সময়ের অবস্থান জানাতে হবে।

২ এর (সি).ফান্ডের ৩ মাস মেয়াদ শেষ হলো ৩০ দিনের মধ্যে বিএসইসিতে সব তথ্যসহ জমা দিতে হবে। একই সাথে গত বছরের একই সময়ের অবস্থান জানাতে হবে।

৩. প্রতি প্রান্তিক শেষ হওয়ার পর ইউনিটহোল্ডারদেরকে ফান্ডের অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে হবে।

৪. প্রতি প্রান্তিকের প্রতিবেদন অ্যাসেট ম্যানেজারের ওয়েবসাইডে প্রকাশ করতে হবে। একই সাথে আর্ধ বার্ষিকী প্রতিবেদন ৪৫ দিনের মধ্যে অ্যাসেট ম্যানেজারের ওয়েবসাইডে প্রকাশ করতে হবে।

জানা গেছে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পুঁজিবাজারের উন্নতির জন্য মিউচ্যুয়াল ফান্ড ভূমিকা রাখছে। কিন্তু বাংলাদেশে মিউচ্যুয়াল ফান্ড অনেকটা বিপরীত অবস্থানে। যার কারণে মিউচ্যুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছেন না বিনিয়োগকারীরা। এবার এই খাতে সুসাশন ফেরাতে চায় নতুন কমিশন।

সোনালীনিউজ/এলএ/এএস

Side banner