• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২১, ১৫ মাঘ ১৪২৭

সবজির দাম কমলেও বেড়েই চলেছে চালের দাম


নিজস্ব প্রতিবেদক নভেম্বর ২৭, ২০২০, ০৯:৫০ এএম
সবজির দাম কমলেও বেড়েই চলেছে চালের দাম

ঢাকা: শীতকালীন সবজির ভরা মৌসুম থাকায় রাজধানীর বাজারগুলোতে সবজির দাম কমতে শুরু করেছে। প্রায় সব ধরনের সবজির দামই গত সপ্তাহের চেয়ে কেজি বা পিছ প্রতি ৫ থেকে ১০টাকা কমেছে। বিক্রেতারা জানান, বাজারে সরবরাহ বেশি হওয়ায় কমেছে সবজির দাম।

প্রতি পিছ ফুলকপি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৪০ টাকা দামে। গত সপ্তাহে দাম ছিলো ৩০ থেকে ৩৫ টাকা। বাধাকপির দাম পিছ প্রতি ৩০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৫ টাকায়। আলু কেজি প্রতি ৫০ টাকা, উস্তা ৬০ টাকা, পটল ৫০, বেগুন ৫ থেকে টাকা কমে টাকা কমে ৫০-৬০ টাকা, সিম কেজি প্রতি ২৫ থেকে ৩০ টাকা টাকায় বিক্রি হচ্ছে। টমেটোর দাম কেজি প্রতি ৫ টাকা কমে ১০০টাকা। নতুন কাঁচা  টমেটো ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে । কাঁচা মরিচ ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি পিছ লাউ বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়। বাকি সবজির দামও কমেছে কেজি প্রতি ৫ টাকা।

তবে স্থিতিশীল আছে মাংস ও ডিমের দাম। গরুর মাংস প্রতি কেজি ৪৩০-৪৪০ টাকা, খাশির মাস ৬৫০-৭০০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৫০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১৩০ টাকা, ফার্মের ডিম প্রতি ডজন ৮৫ টাকা, দেশি মুরগির ডিম ১৫০ টাকা, হাসের ডিম ডজন ১২০-১২৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে কমেছে মাছের দাম ছোট রুই ১৯০ টাকা ২০০, বড় রুই ২৩০-২৪০ টাকা, দেশি গলদা চিংড়ি ৬০০ টাকা ও চাষের গলদা চিংড়ি ৪৫০ টাকা।

এছাড়া সব ধরনের চালের দাম কেজি প্রতি বেড়েছে এক থেকে দুই টাকা। প্রতি কেজি মিনিকেট চালে ২ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকা ও ৫২ টাকা দরে। 

বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম বেড়ে হয়েছে ১০৫ টাকা। এছাড়া পুরনো আলু ৫০ টাকা, দেশি ও ইন্ডিয়ান পিয়াজ ৭০-৮০ টাকা এবং আদা প্রতি কেজি ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। অপরিবর্তিত আছে দেশি রশুন। প্রতি কেজি দেশি রশুন বিক্রি হচ্ছে ১৭০-১৮০ টাকা দরে।

সোনালীনিউজ/এএস/এইচএন