• ঢাকা
  • রবিবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭

তদন্ত কার্যক্রমে স্থগিতাদেশ দিয়েছে বিএসইসি


নিজস্ব প্রতিবেদক জানুয়ারি ১৩, ২০২১, ০৭:০৭ পিএম
তদন্ত কার্যক্রমে স্থগিতাদেশ দিয়েছে বিএসইসি

ফাইল ফটো

ঢাকা: শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত কোম্পানির শেয়ারের দর অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি ও হ্রাস পাওয়া ঠেকাতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নেয়া তদন্ত কার্যক্রম স্থাগিত করা হয়েছে। 

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) স্থগিতাদেশের চিঠি উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা বরাবর পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মূখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম। 

তদন্ত কার্যক্রম স্থগিত করার বিষয়ে তিনি বলেন, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে ও বাজার মধ্যস্থতাকারীদের অনুরোধে মঙ্গলবার দেয়া তদন্তের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিয়েছে কমিশন। এ সংক্রান্ত চিঠি উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে পাঠানো হয়েছে।


এর আগে মঙ্গলবার (১২) এবিষয়ে বিএসইসির উপপরিচালক মোহাম্মদ শামসুর রহমান স্বাক্ষরিত একটি চিঠি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা (সিআরও) বরাবরে নির্দেশনা পাঠানো হয়। বিএসইসি ৪টি কারণে তালিকাভুক্ত কোম্পানির দর উত্থান-পতনের বিষয়ে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল।

বিএসইসির তদন্তের কারণগুলো হচ্ছে- কোনো শেয়ারের দাম এক মাসের মধ্যে ৫০ শতাংশ বা তার বেশি বাড়লে সেটি খতিয়ে দেখতে পারবে ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ। এক মাসের মধ্যে কোনো কোম্পানির শেয়ার লেনদেনের পরিমাণ আগের ছয় মাসের গড় লেনদেনের চেয়ে পাঁচ গুণের বেশি বাড়লে, তালিকাভুক্ত কোম্পানির বার্ষিক বা প্রান্তিক শেয়ারপ্রতি আয় বা ইপিএস আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৫০ শতাংশের বেশি ব্যবধান থাকলে, মূল্য সংবেদনশীল তথ্য বা পিএসআই প্রকাশের আগের ১০ কার্যদিবসে কোনো কোম্পানির দাম ও লেনদেন ৩০ শতাংশের কম-বেশি হলে সেগুলোও খতিয়ে দেখবে স্টক এক্সচেঞ্জ।

বিএসইসি সূত্র জানায়, শুধু শেয়ারদর বৃদ্ধি পেলেই তদন্ত হবেনা, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে শেয়ারদর কমলেও তদন্ত হবে। কিন্তু তদন্ত কি মানদন্ডের উপর ভিত্তি করে হবে, সেটাই নির্ধারণ করেনি বিএসইসি। যেকারণে তদন্ত কার্যক্রম স্থগিত করা হয়।

সোনালীনিউজ/এএস/এমএইস