• ঢাকা
  • শনিবার, ২৫ জুন, ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯

শিক্ষক ও কর্মচারীদের ৭ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে মহাসমাবেশ


নিজস্ব প্রতিবেদক মে ২৯, ২০২২, ০১:১০ পিএম
শিক্ষক ও কর্মচারীদের ৭ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে মহাসমাবেশ

ঢাকা : ৭ দফা দাবি বাস্তবায়নে আগামী শুক্রবার (৩ জুন) সকাল ৯টার সময় ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে কর্মচারী মহা-সমাবেশের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী দাবি বাস্তবায়ন ঐক্য ফোরাম।

৭ দফা দাবিসমূহ

১. জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কর্তৃক প্রদত্ত ১৯৭৩ সনের জাতীয় বেতন ছেলের অনুরূপ ১০ (দশ) ধাপ বিশিষ্ট বেতন স্কেল নির্ধারণ পূর্বক ০৬ (ছয়) সদস্য বিশিষ্ট পরিবারের ব্যয় বিবেচনায় সর্বনিম্ন ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা করতে হবে এবং এ উপলক্ষ্যে নবম জাতীয় পে-কমিশন গঠন করতে হবে। নবম পে-স্কেল ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন সময়ের জন্য প্রজাতন্ত্রের ১১-২০তম গ্রেডভুক্ত কর্মচারীদেরকে ৫০% মহার্ঘ ভাতা প্রদান করতে হবে, শতভাগ পেনশন প্রদান, স্বেচ্ছায় অবসরে চাকরির বয়সসীমা ২০ বছর নির্ধারণ এবং আনুতোষিক প্রতি ০১ (এক) টাকায় ৪০০/- (চারশত) টাকা নির্ধারণ, সকল স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে গ্রাচ্যুইটির পরিবর্তে পেনশন প্রবর্তনসহ বিদ্যমান গ্রাচ্যুইটি/আনুতোষিকের হার ৯০% এর স্থলে ১০০% নির্ধারণ এবং পে-কমিশনে কর্মচারীর প্রতিনিধি রাখতে হবে।

২. প্রজাতন্ত্রের ১১-২০ গ্রেডভুক্ত কর্মচারীদের ক্ষেত্রে বার্ষিক বেতন বৃদ্ধির হার ৫% এর পরিবর্তে ২০% এ উন্নীত করতে হবে। টাইম স্কেল সিলেকশন গ্রেড, টেকনিক্যাল কর্মচারীদের জন্য দু'টি বিশেষ ইনক্রিমেন্ট পুনর্বহাল করতে হবে। এলাকা ভেদে ৭০% হতে ১০০% হারে বাড়ীভাড়া ভাতা, সামঞ্জস্যপূর্ণ চিকিৎসা ভাতা, টিফিন ভাতা, যাতায়াত ভাতা প্রদান করতে হবে এবং পর্যটন এলাকার জন্য পর্যটন ভাতার প্রচলন করতে হবে।
 
৩. সচিবালয়ের ন্যায় সচিবালয়ের বাহিরে সকল দপ্তর/অধিদপ্তরে কর্মরত কর্মচারীদের পদবী ও গ্রেড পরিবর্তনসহ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের জন্য এক ও অভিন্ন নিয়োগ বিধি প্রণয়ন এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদেরকে প্রথম শ্রেণী ও সহকারী শিক্ষকদেরকে দ্বিতীয় শ্রেণী কর্মকর্তার পদমর্যাদা ও শতভাগ বিভাগীয় পদোন্নতি প্রদান করতে হবে।

৪. ব্লক পদ প্রথা প্রত্যাহার, পদোন্নতিযোগ্য পদ শূণ্য না থাকলেও নির্ধারিত সময়ের পর উচ্চতর পদের বেতন ক্ষেল প্রদান, ঝুঁকিপূর্ণ কর্মে নিয়োজিত কর্মচারীদেরকে যৌক্তিকভাবে ঝুঁকিভাতা প্রদান করতে হবে এবং আউট সোর্সিং নিয়োগ প্রথা বিলুপ্ত করে কর্মরতদের রাজস্ব খাতে স্থানান্তর করতে হবে।

৫. প্রজাতন্ত্রের ১১-২০ গ্রেডভুক্ত কর্মচারীদেরকে বিনাসুদে ৩০ লক্ষ টাকা গৃহঋণ সুবিধা ও গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির বিল বাবদ প্রতিমাসে ০৫ (পাঁচ) হাজার টাকা প্রদান করতে হবে। সকল স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মচারীদের চাকরিরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করলে সরকারি কর্মচারীদের ন্যায় অনুদান প্রদান করতে হবে।
 
৬. উন্নয়ন খাত থেকে রাজস্বখাতে স্থানান্তরিত কর্মচারীদের চাকরিকাল যোগদানের তারিখ থেকে গণনা, অাচিত ২০% হারে পেনশন কর্তনের হয়রানি বন্ধ করতে হবে। প্রজাতন্ত্রের ১১-২০ গ্রেডভুক্ত কর্মচারীদের জন্য সকল নিয়োগে ৩০% পোষ্য কোটা সংরক্ষণ করতে হবে। অফিসার্স ক্লাব, বিএমএ, কেআইবি, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন এর মতো চাকরিরত ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের জন্য রাজধানীতে একটি কর্মচারী কমপ্লেক্স নির্মাণ করতে হবে।

৭. সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ (পঁয়ত্রিশ) ও অবসরের বয়সসীমা ৬২ (বাষটি) বছর এবং অধস্তন আদালতের কর্মচারীদের বিচার বিভাগীয় কর্মচারী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

দাবি আদায়ের লক্ষ্যে 'বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী দাবি বাস্তবায়ন ঐক্য ফোরাম' এর সাথে সংযুক্ত সংগঠনগুলো হলো বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি (কাসেম-শাহীন), বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি (তোতা-গাজী),  বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজ (আনিস-রবিউন), বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজ (শাহিনুর আল আমিন-ইলিয়াছ), বাংলাদেশ ১৬-২০ গ্রেড সরকারি কর্মচারী সমিতি (সাবেক ৪র্থ শ্রেণি কর্মচারী সমিতি), বাংলাদেশ সরকারি গাড়ীচালক সমিতি, বাংলাদেশ বিচার বিভাগীয় কর্মচারী এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ তৃতীয় শ্রেণি সরকারি কর্মচারী সমিতি (ইব্রাহিম খলিল ওবায়েদ), বাংলাদেশ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল শ্রমিক কর্মচারী সংগঠন বাংলাদেশ ডাক কর্মচারী সমন্বয় পরিষদ, বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী সংহতি পরিষদ, বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী উন্নয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী কল্যাণ ফেডারেশন এবং ১১-২০ গ্রেডের সরকারি চাকুরিজীবীদের সম্মিলিত অধিকার আদায় ফোরাম।

বাংলাদেশ সরকারী কর্মচারী দাবি বাস্তবায়ন ঐক্য ফোরামের সমন্বয়ক ও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো.আবুল কাসেম ও সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহীন আগামী ৩ জুন ২০২২ তারিখ শুক্রবার ঢাকা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রধান শিক্ষকদের ১ম শ্রেণি এবং সহকারী শিক্ষকগণের ২য় শ্রেণীর মর্যাদা প্রদান ও শতভাগ বিভাগীয় পদোন্নতি, ৯ম পে স্কেল ঘোষণা, অন্তর্বর্তীকালীন ৫০% মহর্ঘ্য ভাতা, টাইমস্কেল সিলেকশান গ্রেড পুর্নবহাল,পে স্কেলে ২০ গ্রেড থেকে কমিয়ে ১০ গ্রেডে বেতন নির্ধারণসহ প্রজাতন্ত্রের সরকারী কর্মচারীদের ৭ দফা দাবিতে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারী দাবি বাস্তবায়ন ঐক্য ফোরাম আয়োজিত মহাসমাবেশ সফল করতে প্রত্যেক উপজেলা এবং জেলায় সম্মিলিতভাবে মহাসমাবেশ সফল করার প্রস্তুতি নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System