• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট, ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

সানী-মৌসুমীর সাংসারিক দ্বন্দ্বে খুশি স্বাগতম ঘোষ! 


বিনোদন ডেস্ক জুন ১৩, ২০২২, ০৫:০৫ পিএম
সানী-মৌসুমীর সাংসারিক দ্বন্দ্বে খুশি স্বাগতম ঘোষ! 

ফাইল ছবি

ঢাকা: জায়েদ খানকে কেন্দ্র করে আশান্তির আচ লাগতে শুরু করেছে মৌসুমী-ওমর সানীর সংসারে!গুঞ্জন চলছে, তবে কি চিত্রনায়ক ওমর সানীর অভিযোগই সত্যি হচ্ছে, ভাঙতে চলেছে দীর্ঘ ২৭ বছরের সংসার!

চিত্রনায়িকা মৌসুমীর সঙ্গে খারাপ আচরণের জেরে ওমর সানী চড় মেরেছেন জায়েদ খানকে। চড়ের পর ওমর সানীকে পিস্তল বের করে মারার হুমকি দেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান।এই ঘটনায় মিডিয়া পাড়া তোলপাড়।সানীর অভিযোগ জায়েদ খান অনেক মেয়ের সংসার ভেঙেছে এবং গত চার মাস ধরে জায়েদ খান তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা মৌসুমীকে বিরক্ত করছেন। যদিও জায়েদ খান এ ঘটনাকে মিথ্যা দাবি করেছেন।

এরপর সোমবার (১৩ জুন) জায়েদ খানের পক্ষ নিয়ে কথা বলেছেন মৌসুমী। তিনি বলেছেন, ‘আমি মনে করি আমার প্রসঙ্গটা টানার কোনো প্রয়োজন ছিল না। আমি জায়েদকে অনেক স্নেহ করি ও আমাকে যথেষ্ট সম্মান করে। আমাদের মধ্যে যতটুকু কাজের সম্পর্ক, সেটা খুবই ভালো একটা সম্পর্ক। সেখানে ও আমাকে অসম্মান করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আর ওর এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে পারে, এমন কিছুই আমি দেখিনি। তারপর বলব ও অনেক ভালো ছেলে। সে কখনই আমাকে অসম্মান করেনি।’

এই অভিনেত্রী আরো বলেন, ‘কেন এই প্রশ্নটা বারবার আসছে, সে আমাকে বিরক্ত করছে- উত্যক্ত করছে, এই জিনিসটা আমার আসলে... জানি না এটা কেন হচ্ছে। এটা যদিও একান্ত আমাদের ব্যক্তিগত সমস্যা। সে সমস্যা আমাদের পারিবারিকভাবেই সমাধান করা দরকার ছিল। ’

ওমর সানী প্রসঙ্গে মৌসুমী বলেন, ‘এখানে জায়েদের খুব একটা দোষ আমি পাইনি। আরেকটা কথা বলতে চাই, আমাকে ছোট করার মধ্যে আমাদের... যাকে আমরা অনেক শ্রদ্ধা করে আসছি সেই ওমর সানী ভাই কেন এতো আনন্দ পাচ্ছেন- সেটা আমি বুঝতে পারছি না। আমার কোন সমস্যা থাকলে অবশ্যই আমার সঙ্গে সমাধান করবে, সেটিই আমি আশা করি।’

সবশেষে তিনি দাবি করেন, ওমর সানী এক তরফা বলেছেন। কিন্তু তিনি অভিযোগ করছেন কি-না; এটা সবার জানা বেশি জরুরি।

এরপর ফেসবুক লাইভে এসে ওমর সানী বলেন, ‘আমি মৌসুমীকে নিয়ে কিছু বলবো না। তার প্রতি সম্মান জানাই। আমার ছেলে-মেয়ে বাকি কথাগুলো বলবে, এটার সত্যতা কতটুকু।’ ওমর সানী ভাষ্য, ‘সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে আমার ছেলে বড় হয়েছে। তার একটি স্ত্রী আছে। আমরা পাঁচজনের সংসার। সমস্ত কিছু, জায়েদ খানের গাড়ির বিষয়ে আমাদের কাছে বেশ ভালো প্রমাণ আছে। সেটা আমরা চাচ্ছিলাম বলতে। সব পরিবারেই দাম্পত্য কলহ অল্পস্বল্প থাকে। আমরা চাচ্ছিলাম নিজেরা নিজেরা এটা মিট করতে। সেদিন এটা এত এক্সট্রিমলি চলে গিয়েছিল আমি আউটবাস্ট হয়ে গিয়েছিলাম।’

এদিকে ওমর সানী-মৌসুমীকে ঘিরে বিস্তর আলোচনা-সমালোচনা-পর্যালোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 

ফেসবুকে একজন মন্তব্য করে লিখেছেন-স্বামী যখন ভাই হইছে সংসার ভাঙতে কতক্ষণ।

আরেকজনের মন্তব্য এমন-এগুলা নতুন কিছু নয়, বিনোদন জগতে এগুলা হয়ে থাকে এ আর এমন কি।।।

স্বাগতম ঘোষ নামের একজন লিখেছেন- মৌসুমী আমার ক্রাস ছিল ছোটবেলায় মনে মনে সানি ভাইকে গালি ও দিতাম তবে জানতাম না আমার আশা কখনো পূর্ণ হতে পারে। তবে এবার আশার আলো দেখতে পাচ্ছি।

ফেসবুক থেকে নেয়া।

সালাম আহমেদ চৌধুরী কিং নামের একজন লিখেছেন-সানি অশিক্ষিত হলেও সত্যি কথা বলেছে। তারপরও সব কিছুই গোপনেই করা বুদ্ধিমান এর কাজ হত। জায়েদ এর এই শিক্ষার কোন দাম নাই।

নজরুল ইসলাম সাজুর মন্তব্যটা বেশ সুন্দর। তিনি লিখেছেন-এখন সিনেমা নাই, দেখিও না। তাই এটাই আমি বিনোদন হিসেবে দেখছি।

ফেসবুক থেকে নেয়া।

এরকম শতশত মন্তব্যে ভরে গেছে সামাজিক মাধ্যম।

সোনালীনিউজ/আইএ

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System