• ঢাকা
  • শনিবার, ১৯ জুন, ২০২১, ৫ আষাঢ় ১৪২৮
abc constructions

মিয়ানমারে বিক্ষোভে একদিনেই ঝরে গেল আরও ৫০ প্রাণ


আর্ন্তজাতিক ডেস্ক মার্চ ২৭, ২০২১, ০৫:২৪ পিএম
মিয়ানমারে বিক্ষোভে একদিনেই ঝরে গেল আরও ৫০ প্রাণ

ফাইল ফটো

ঢাকা: সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালনের দিনে আরও বেশি সহিংস হয়ে উঠেছে মিয়ানমারের সামরিক সরকার। শনিবার (২৭ মার্চ) গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি চালিয়ে অন্তত ৫০ জনকে হত্যা করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। 

সেনা প্রধান মিন অং হ্লাইং গণতন্ত্র রক্ষার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার দিনেই দেশটিতে নৃশংসতা চালানো হচ্ছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

শনিবার সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালন করছে মিয়ানমারের সেনা সরকার। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানি দখলদারিত্ব প্রতিরোধ শুরুর দিনটি পালন উপলক্ষে বড় ধরনের শক্তি প্রদর্শনের কর্মসূচি রাখা হয়েছে। আর এদিন নতুন করে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে গণতন্ত্রপন্থী আন্দোলনকারীরা। এর জেরে গণতন্ত্রপন্থী বিক্ষোভকারীদের হুঁশিয়ার করে দেয় সেনা সরকার। বিক্ষোভকারীদের মাথা কিংবা পিঠে গুলি লাগতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

ওই সতর্কতা উপেক্ষা করে ইয়াঙ্গুন, মান্দালয় ছাড়াও বিভিন্ন শহরের রাস্তায় নেমে আসে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী। ইয়াঙ্গুনের ডালা এলাকায় একটি পুলিশ স্টেশনের বাইরে বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনী গুলি চালালে অন্তত চার জন নিহত হয়। ওই সময় আরও অন্তত দশ জন আহত হয়েছে।

এছাড়া ইনসেইন জেলায় তিন ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করা হয়। নিহতদের মধ্যে একজন স্থানীয় অনুর্ধ্ব ২১ ফুটবল দলের সদস্য রয়েছেন। মান্দালয়ে বিভিন্ন ঘটনায় নিহত হয়েছে ১৩ জন। এছাড়া পূর্বাঞ্চলীয় লাশিও, বাগিও এবং উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় হোপিন শহর থেকেও বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। মিয়ানমার নাউ জানিয়েছে, শনিবার এখন পর্যন্ত অন্তত ৫০ বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক মহড়ায় মিয়ানমারের সেনাবাহিনী প্রধান মিন অং হ্লাইং বলেছেন, তারা গণতন্ত্র রক্ষা করতে ক্ষমতায় এসেছেন।  নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রতিশ্রুতি দিলেও তার কোনও সময়সীমা উল্লেখ করেননি তিনি।

সেনা প্রধান বলেন, ‘গণতন্ত্র রক্ষায় পুরো দেশের সঙ্গে হাত মেলাতে চায় সেনাবাহিনী। দাবি আদায়ে সহিংসতার মাধ্যমে স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তাকে ক্ষতিগ্রস্থ করা ঠিক নয়।’ তিনি দাবি করেন মানুষের সুরক্ষা এবং দেশে শান্তি পুনরায় প্রতিষ্ঠিত করতে চাইছে কর্তৃপক্ষ।

উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারি নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চির সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এরপর থেকেই দেশটিতে বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভকারীরা সু চির মুক্তির পাশাপাশি বেসামরিক কর্তৃপক্ষের হাতে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানাচ্ছেন। এসব বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত ৩৮০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

সোনালীনিউজ/এমএইচ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School