• ঢাকা
  • বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮
abc constructions

‘রাজ্যপালকে আদব কায়দা শেখাতে প্রেসিডেন্টও ব্যর্থ’


নিউজ ডেস্ক জুন ১৮, ২০২১, ০৬:২৪ পিএম
‘রাজ্যপালকে আদব কায়দা শেখাতে প্রেসিডেন্টও ব্যর্থ’

ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করে এ ছবি পোস্ট করেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

ঢাকা: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 

বৃহস্পতিবারের (১৭ জুন) ওই বৈঠকের ছবি নিজের টুইটার টাইমলাইনে নিজেই পোস্ট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। 

ছবিতে দেখা যায় পায়ের উপর পা তুলে বসে আছেন রাষ্ট্রপতির সামনে। অথচ রাষ্ট্রপতিসহ অন্যরা ভদ্রভাবে বসে আছেন। এ ছবি প্রকাশের পর টুইটারে সমালোচনার ঝড় উঠে। 

অমিত কুমার মুখার্জি নামের একজন রিটুইট করে বলেন, কাকা, উনি রাষ্ট্রপতি। একটু সম্মান করতে শিখুন। ওনার দিকে পা তুলে বসেছেন আবার সেই ছবি পোস্ট করেছেন। ধিক্কার জানাই আপনাকে।

ড. শামীম রেজা নামের একজন বলেন, কাকা রাষ্ট্রপতির সামনে এমনভাবে বসে আছেন কেন? জাতপাতের কথা মাথায় রেখেই নাকি? যেমনটা মহুয়া মৈত্র ম্যাডামের টুইটের উত্তরে অযাচিতভাবে জাতপাতের কথা টেনেছিলেন?

পীযূষ কান্তি পাল বলেন, গণতন্ত্রের হত্যাকারী তারা যারা সংবিধানিক পদে বসে পরিবর্তনের ডাক দেয় দলদাস হয়ে। মাননীয় রাষ্ট্রপতি মহাশয়ের কাছে অনুরোধ এসব ব্যক্তিকে যত তাড়াতাড়ি পদ থেকে সরিয়ে দেবে তত তাড়াতাড়ি পদটার সম্মান বাড়বে।

অলোকেশ পাল নামের একজন লেখেন, এটা রাজ্যপাল নাকি বিজেপির ক্যাডার?

সুজিত রায় নামের একজন বলেন, আঙ্কেলজি আপনি আর পশ্চিমবঙ্গে আসবেন না। এটাই সবার জন্য মঙ্গল। 

নিমাই কুমার রায় নামের একজন লেখেন, অসভ্য রাজ্যপাল। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলার সময় পায়ের উপর পা তুলে ছিলেন, অথচ রাষ্ট্রপতি পা না তুলে কথা বলেছিলেন। এইভাবে রাজ্যপাল নিজেকে বোধ বুদ্ধিহীন জোকারে পরিণত করেছেন।

রাজ বিশ্বাস নামের একজন বলেন, এই রাজ্যপালকে আদব কায়দা শেখাতে প্রেসিডেন্টও ব্যর্থ। 

শুভজিত দে নামের একজন রিটুইট করে বলেন, আমি মাননীয় রাষ্ট্রপতির কাছে অনুরোধ করব রাজভবনে নিয়োগ দুর্নীতিবাজ, সংবিধান হত্যাকারী, ভারতীয় জাদুঘরের ১০৯ কোটির দুর্নীতিতে অভিযুক্ত এই দলবাজ জঘন্য রাজ্যপালকে আর পশ্চিমবঙ্গে পাঠাবেন না।

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Dutch Bangla Bank Agent Banking
Wordbridge School