• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২২, ৫ মাঘ ১৪২৮

প্রায় চারশ বছর পর ব্রিটিশ রাজতন্ত্র থেকে মুক্ত বার্বাডোজ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডিসেম্বর ১, ২০২১, ০৭:২৮ পিএম
প্রায় চারশ বছর পর ব্রিটিশ রাজতন্ত্র থেকে মুক্ত বার্বাডোজ

ঢাকা: ব্রিটেনের রাজা জেমস প্রথম ১৬২৫ সালে বার্বাডোজের উপকূলে জাহাজ ভেড়ান। এর দুই বছর পরই দেশটিতে ব্রিটিশ উপনিবেশ গড়ে তোলা হয়। লন্ডনের কিংস কলেজের অধ্যাপক রিচাড ড্রেটন বলেন, সতেরো ও আঠারো শতকের ইংল্যান্ডে ব্যক্তিগত সম্পদের একটি মূল উত্স ছিল বার্বাডোজ। 

সেখানে চিনি ও দাস ব্যবসা করে ইংল্যান্ডের অনেক পরিবার রাতারাতি সম্পদের পাহাড় গড়ে। অবশেষে ব্রিটেনের সঙ্গে ঔপনিবেশিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে বার্বাডোজ। আনুষ্ঠানিকভাবে দেশটি এখন প্রজাতন্ত্র। রাষ্ট্রপ্রধান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথকে। পেয়েছে নিজস্ব পতাকা। এর মধ্য দিয়ে ৩৯৬ বছর পরে এসে ক্যারিবীয় দেশটিতে অবসান ঘটল ব্রিটিশ রাজতন্ত্রের।

গত সোমবার মধ্যরাতে রাজধানী ব্রিজটাউনের চেম্বারলিন ব্রিজে নতুন রিপাবলিক বার্বাডোজের আনুষ্ঠানিকতা হয়। হিরোস স্কয়ারে ২১ বার তোপধ্বনি এবং জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এ সময় চেম্বারলিন ব্রিজে সমবেত হাজার হাজার মানুষ উল্লাসে ফেটে পড়ে। দেশটির ৫৫তম স্বাধীনতা দিবস ছিল এদিন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে বার্বাডোজের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন সান্দ্রা ম্যাসন। এর আগে দেশটির গভর্নর জেনারেল হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন তিনি। বার্বাডোজ নতুন স্বপ্ন নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন নতুন রাষ্ট্রপ্রধান।

প্রজাতন্ত্র হিসেবে বার্বাডোজের যাত্রা শুরুর আগে একটি জরিপ চালানো হয়েছিল। জরিপের ফল প্রকাশ করা হয়েছিল রাজপরিবারের কাছে। গার্ডিয়ান বলছে, ওই জরিপে দেখা যায়, ক্যারিবীয় দেশটির ৬০ শতাংশ লোকই প্রজাতন্ত্রের পক্ষে নিজেদের সমর্থন জানান। প্রতি ১০ জনে মাত্র ১ জন ছিলেন রানির শাসনে থাকার পক্ষে।

রানির শাসন থেকে বেরিয়ে আসার উদ্যোগ অবশ্য বার্বাডোজের নতুন নয়। ১৯৭০ সালে ক্যারিবীয় অঞ্চলের বেশ কয়েকটি দেশ ঔপনিবেশিক শাসন থেকে বেরিয়ে যায়। এর আগেই ১৯৬৬ সালে ব্রিটেনের থেকে স্বাধীনতা পেয়েছিল বার্বাডোজ। সে সময় দেশটির তত্কালীন প্রধানমন্ত্রী এরোল ব্যারো রানির শাসন থেকে বেরিয়ে আসার আভাস দিয়েছিলেন। 

এর দীর্ঘদিন পরে এসে গত বছরের ৩০ নভেম্বর স্বাধীনতা দিবসে পাকাপাকিভাবে বার্বাডোজ প্রজাতন্ত্র গঠন করার ঘোষণা দেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মিয়া মোতেলের সরকার। তবে প্রজাতন্ত্র হলেও কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর একটি হিসেবে পরিচিতি থাকবে বার্বাডোজের।

ক্ষমতা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটেনের প্রিন্স চার্লস। প্রজাতন্ত্র হিসেবে বার্বাডোজের যাত্রাকে ‌‌নতুন সূচনা হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন তিনি। প্রিন্স চার্লস বলেন, ‌অতীতের অন্ধকার সময় ও দাসত্বের নৃশংসতা থেকে মুক্ত হয়ে বার্বাডোজের বাসিন্দারা নিজেদের পথ গড়ে নিয়েছেন। 

সোনালীনিউজ/এআর

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System