• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০, ১১ কার্তিক ১৪২৭
Sonalinews.com

প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য আরও একটি সুখবর


আদালত প্রতিবেদক সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০, ১০:২০ এএম প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য আরও একটি সুখবর

ঢাকা: প্রাথমিকের নব্য জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের জ্যেষ্ঠতা নির্ধারণে জাতীয়করণের তারিখ থেকে হিসাব না করে ৫০ শতাংশ সার্ভিস কাউন্ট করে প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি দিতে বলা হাইকোর্টের রায় ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্ট আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালত। এর ফলে পুরাতন শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতিতে আপাতত কোনও বাধা রইলো না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. নুরুজ্জামানের চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী হাবিবুর রহমান।

এর আগে সরকার ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি সারাদেশের ২৬ হাজার ১৯৩টি  বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করে। জাতীয়করণ নীতিমালা অনুযায়ী যে তারিখ থেকে বিদ্যালয় জাতীয়করণ করা হয়েছে সেই তারিখ থেকে পদোন্নতির ক্ষেত্রে তাদের জ্যেষ্ঠতা নির্ধারণ হবে।

কিন্তু ২০১৫ সালে বিদ্যালয় জাতীয়করণের তারিখ থেকে নয়, শিক্ষকদের যোগদানের তারিখ থেকে ৫০ শতাংশ সার্ভিস কাউন্ট করে প্রধান শিক্ষকদের পদোন্নতির নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে শিক্ষকরা পৃথক কয়েকটি রিট দায়ের করেন। এর মধ্যে একটি রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি নাইমা হায়দারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ রায় ঘোষণা করেন। হাইকোর্টের রায়ে, বিদ্যালয় জাতীয়করণের তারিখ থেকে হিসাব না করে ৫০ শতাংশ সার্ভিস কাউন্ট করে প্রধান শিক্ষকদের পদোন্নতির নির্দেশ দেওয়া হয়। এতে করে পূর্বে নিয়োগকৃত শিক্ষকদের পদোন্নতি আটকে যায়।

এদিকে হাইকোর্টের রায় স্থগিত চেয়ে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমাজের সভাপতি তপন কুমার মণ্ডলসহ কয়েকজন সহকারী শিক্ষক চেম্বার আদালতে আপিল আবেদন জানান। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত হাইকোর্টের রায় স্থগিতের আদেশ দিলেন।

এর ফলে পূর্বে নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে পদোন্নতি দিতে আপাতত আর কোনও বাধা রইলো না। এমনকি ৫০ শতাংশ সার্ভিস কাউন্ট করে নব্য সরকারি শিক্ষকরা পদোন্নতির জন্য গ্রেডেশনভুক্ত হতে পারবে না।

সোনালীনিউজ/এইচএন

Side banner