• ঢাকা
  • শনিবার, ২১ মে, ২০২২, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

এই শীতে শরীর গরম রাখে যেসব খাবার


লাইফস্টাইল ডেস্ক জানুয়ারি ১৭, ২০২২, ১২:১৪ পিএম
এই শীতে শরীর গরম রাখে যেসব খাবার

ঢাকা : সারাদেশে জেঁকে বসেছে শীত। এমন সময় উষ্ণতা পেতে গরম পোশাকের পাশাপাশি চাই গরম খাবার। এমন কিছু খাবার খাওয়া উচিত, যা শরীরকে ভেতর থেকে গরম রাখে ও আমাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।

চলুন তবে জেনে নেই শরীর গরম রাখতে কোন খাবারগুলো খেতে হবে।

আদা চা : শীতকালে নিজেকে গরম রাখার সবচেয়ে সহজ উপায় হলো এক কাপ আদা চা। থার্মোজেনিক উপাদানের কারণে আদা শরীর উষ্ণ রাখতে সাহায্য করে। এটি হজমে সহায়তা করে এবং রক্ত প্রবাহ বাড়িয়ে দেয়।

মধু : মধুতে রয়েছে কার্বোহাইড্রেট, সেই সঙ্গে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, মিনারেল ও আন্টি অক্সিডেন্ট যা আমাদের ইমিউনিটি বজায় রাখে। শরীরে তাপ উৎপাদনে সাহায্য করে। ঠান্ডাজনিত অসুখ থেকে রক্ষা করে। সর্বোপরি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

রসুন : শরীর উষ্ণ রাখার জন্য খাবারের তালিকায় অবশ্যই রাখুন রসুন। রান্নার সঙ্গে উপকরণ তো বটেই, খেতে পারেন গার্লিক ব্রেড বা রসুনের আচারও।

মরিচ : শরীরে উষ্ণতা ধরে রাখতে শুকনো মরিচের জুড়ি নেই৷ শুকনা মরিচে আছে পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজের মতো উপকারী উপাদান, যা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই উপকারী।

খেজুর : খেজুরের স্বাস্থ্যগুণও একাধিক। শরীর উষ্ণ রেখে ঠাণ্ডার হাত থেকে রক্ষার পাশাপাশি হাড় মজবুত করে। তাই শীতে নিয়মিত দুধের সঙ্গে খেজুর খেতে পারেন।

ডিম : পুরুষের ক্ষেত্রে শরীর গরম রাখতে সাহায্য করে ডিম। এটি পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ একটি খাবার। ডিমের মধ্যে রয়েছে প্রয়োজনীয় অ্যামাইনো অ্যাসিড। এছাড়া এতে রয়েছে ভিটামিন এ, বি৫, বি১২, বি৬, ডি, ই, কে, ফোলেট, ফসফরাস, সেলিনিয়াম, ক্যালিয়াম ও জিংক। প্রতিটি ডিমের মধ্যে রয়েছে পাঁচ গ্রাম প্রোটিন।

দারুচিনি : শরীরের তাপমাত্রা কমে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে এই মসলা বেশ উপকারী। আলাদা স্বাদ আনতে স্যুপ, রান্না করা খাবার, সালাদের সঙ্গে দারুচিনি মিশিয়ে নিতে পারেন। এ ছাড়া চায়ের সঙ্গেও মেশাতে পারেন।

ঘি : ঘি সারা বছরের সুপার ফুড। প্রতিদিন অল্প পরিমাণ ঘি খেলে রক্তে গুড কোলেস্টেরল তৈরি হয়,যা হার্টকেও ভালো রাখতে সাহায্য করে। এছাড়াও দৈহিক তাপমাত্রা বজায় রাখা, হজমশক্তি বৃদ্ধি, দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখা, পেশির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি এবং শরীর থেকে বিষাক্ত টক্সিন বের করে দেয়।

গুড় : প্রচুর আয়রন, এনার্জির উৎস ছাড়াও গুড় কিন্তু হজমশক্তিও বৃদ্ধি করে। যাদের ডায়াবিটিস রয়েছে তারাও কিন্তু নির্ভয়ে গুড় খেতে পারেন। শীতে শরীরকে গরম রাখতে জুড়ি নেই গুড়ের।

তুলসি : আয়ুর্বেদিক গ্রন্থ থেকে জানতে পারা যায়, শীতকালে শরীরকে সুস্থ এবং কর্মক্ষম রাখতে তুলসি এবং আদার কোনো বিকল্প হয় না বললেই চলে। কারণ এই দুই প্রাকৃতিক উপাদানের শরীরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিবায়োটিক এবং অ্যান্টিভাইরাল প্রপার্টিজ, যা শীতের হাত থেকে বাঁচাতে সব দিক থেকে সাহায্য করে থাকে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System