• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
রকিব লিখনের তিনটি কবিতা

তুমি আমার দেহের কুরআন, সত্যতারই আযান


রকিব লিখন অক্টোবর ১৭, ২০২১, ০৬:৩৭ পিএম
তুমি আমার দেহের কুরআন, সত্যতারই আযান

ছবি (প্রতীকী)

সন্ন্যাসী

তোমাকে না দেখার কষ্টে হয়ে গেছি এক বিষণ্ণ পাহাড় 
নীরব দহনের সাথে আত্মীয়তা করে আমি অঙ্গার 
কতটুকু বিষে একটি মানুষ মরে মরে হয় পিরামিড 
তুমিতো ভুলে থাকতে পারো; তুমি অসম্ভব পারিবারিক 

প্রেমের হাতটুকু বাড়িয়েই শামুকের খোলসে লুকাও
চাতুরী, ছলনা না ভয় তোমার বুঝিনা; নির্বাক ভাবী
ব্যাকরণিক সূত্রে তুমি প্রেমিকা; সন্ত্রস্ত অভিসারী
পারিবারিক সূত্রে প্রতিরাতে ধ্বনিত হয় তোমার শীৎকার 

একটু ভেবে দেখো; তুমি সিক্ত শান্ত শীতল পরশে যুক্ত 
পিপাসায় কাতর চাতক দরিয়ার পানি পানে অনভ্যস্ত  
আমি কাম নয় প্রেমের বন্ধনে তোমাকে চেয়েছিলাম 
অবশেষে দেখলাম কাম ছাড়া তোমার কাছে প্রেম অচল

আমিও কামুক পুরুষ জলে জলে জলকেলি করি  
আমিও কামুক পুরুষ বাহুডোরে আঁকতে পারি বন্ধন 
আমিও কামুক পুরুষ বর্ষায় হতে পারি দুর্বার বসন্ত
অনিবার্য কারণে আমি তোমার সাথে থাকতে পারি না 

কারণ তুমি পারিবারিক; আমি বিশ্বপ্রেমিক সন্ন্যাসী 

বিষে জর্জরিত হৃদয়ে তোমাকেই ভাবি

অথচ; বুকের মধ্যেই তুমি অথবা তোমার ওম ওম স্পর্শ
তবুও অহর্নিশ তোমারই প্রতীক্ষা;

বিভোল নৃত্যে ছন্দের জোয়ারে তোমাকেই
রচনা করি স্রোতস্বী নদীর প্রেমসঙ্গীতে
হেলেন থেকে ট্রয়; পদ্মাবতী থেকে চিতোর
বুকের জমিন আমার সমহারে হয় লুট

কিংবা বহু পৃথিবীর কাব্যচাষী তুমি
ফসলের সোনালি রং; বেধের চারণ কবি
বহু ভোগী কৃষ্ণও মথিত হয় রাধার বিরহে
তেমনি তুমিও; জলদি

রাত রাত গন্ধে নিঃস্ব আমি; বুক হিমায়িত কফিন
কালো আর ধূলোর অসুখে মৃত মন হেঁটে হেঁটে ক্লান্ত
তবুও; আমার থর থর কম্পিত হৃদয়
তোমার নামেই তসবি জপে বাতাসিয়া সুরে

তুমি কারো কাব্যিক ছবি হও আঁধারের দোলাচলে
আমি বিষে জর্জরিত হৃদয়ে তোমাকেই ভাবি

তুমি আমার দেহের কুরআন, সত্যতারই আযান

আমার বুকের জমিনে তর্জনি রেখে বলো “ভালোবাসি”
বিশুদ্ধ ভায়োলিনে বাজুক রোদ ভেজা পড়ন্ত বিকেল
অশুদ্ধ শব্দচারী হয়ে উঠুক দুর্মর কবিতার নিস্বান সুর
বিষণ্ন ক্যাকটাসে ফুটুক রবীন্দ্র সঙ্গীতের উদ্দাম মেঘ

ভোর ভোর চোখ তুলে অবাক পৃথিবী দেখুক তোমায়
নীল আর আবীরের ব্যবধানে তোমার রূপের থান
আধবোলা শিশুর মতো বোলবোলে বলুক পৃথিবী
আমিও মাঝি হবো তোমার সুর আর ক্রন্দরের গীতে

তখনো আমি নাবিক; তুমি শুধু বিশুদ্ধ কর তর্জনি
বুকে রেখে একবার বল ঘুম ভাঙ্গা পৃথিবী শুনুক
আযানের সুরের মতন বিশুদ্ধ প্রতীকী উচ্চারণে 
তর্জনি রেখে আমার হিম ধরা বুকে “ভালোবাসি”

ভায়োলিন থেকে হ্যামোলিন হয়ে বিশুদ্ধ কোরাসে
বাতাসের গুঞ্জরণে সমর সঙ্গীতে জাগাবো পিয়াসি সুর
বিশ্বলোক মন্থিত হবে দৃঢ় উচ্চারণের তিয়াসি গানে
“তুমি আমার দেহের কুরআন, সত্যতারই আযান”।

সোনালীনিউজ/এসএন

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System