• ঢাকা
  • রবিবার, ২৯ জানুয়ারি, ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯

বিসিআইসি চেয়ারম্যানের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিতে শিল্পমন্ত্রীর ডিও


নিজস্ব প্রতিনিধি নভেম্বর ২৮, ২০২২, ০৬:২৪ পিএম
বিসিআইসি চেয়ারম্যানের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিতে শিল্পমন্ত্রীর ডিও

ফাইল ছবি

ঢাকা : শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশনের (বিসিআইসি) চেয়ারম্যান এর আরও দুই বছর চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগের জন্য জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনকে আধা সরকারি পত্র (ডিও) দিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। সম্প্রতি এক আধাসরকারি পত্রে তিনি এই অনুরোধ জানান। যদিও এ ধরনের তদবির সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালার সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

আধাসরকারি পত্রে তিনি বলেন, আপনি নিশ্চয়ই অবগত আছেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন (বিসিতাহসি) দেশের বৃহত্তর রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে অত্যন্ত সফলতা ও সুনামের সঙ্গে পরিচালিত হয়ে আসছে। ১৯৯৬ সাল হতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের চাহিদা অনুযায়ী বিসিআইসি'র নিজস্ব ইউরিয়া ফ্যাক্টরীতে সার উৎপাদন, কাফকো বাংলাদেশ লিঃ হতে সার ক্রয় এবং জি টু জি চুক্তির আওতায় মধ্য প্রাচ্যের ৩টি দেশ থেকে সার আমদানি করে সফলতার সাথে বাফার গোডাউনে সংরক্ষণ ও ডিলারদের নিকট যথা সময়ে সরবরাহ করে আসছে। বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর হতে দেশে অদ্যাবধি ইউরিয়া সারের কোনো সংকট সৃষ্টি হয়নি। বিশ্বে করোনা পরবর্তী রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক বিরূপ পরিস্থিতিতেও দেশে ইউরিয়া সারের আমদানি বিঘ্নিত হয়নি। এ কাজে চেয়ারম্যান, বিসিআইসিকে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকতে হচ্ছে। 

শাহ্ মো: ইমদাদুল হক (পরিচিতি নং-৫৩৫৫) গত বছরের ৮ জুন  তারিখ হতে বিসিআইসি-তে চেয়ারম্যান (গ্রেড-১) হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি একজন সং, দক্ষ, পরিশ্রমী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী কর্মকর্তা। তাঁর পিতা ফরিদপুর জেলার মধুখালী উপজেলাধীন একজন বিশিষ্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা। এ কর্মকর্তা আগামি ৩১ ডিসেম্বর পিআরএল এ গমন করবেন। এ কর্মকর্তার স্থলে নতুন কর্মকর্তা পদায়ন করা হলে চলমান ইউরিয়া সারের পিকসিজনে (ডিসেম্বর-২০২২ মাস থেকে মার্চ ২০২৩ মাস পর্যন্ত) ইসি/বোরো মৌসুমে বর্ণিত প্রক্রিয়া অনুসরণে ইউরিয়া সারের চাহিদা অনুযায়ী দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইউরিয়া সারের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ অব্যাহত রাখা বেশ কঠিন হয়ে পড়বে।
 
আসন্ন ২০২৩ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সার নিয়ে সরকারের কোনরূপ ঝুঁকি নেয়া সমীচীন হবেনা। তাছাড়া বর্তমানে নরসিংদী জেলায় নির্মানাধীন ৯.২৪ লক্ষ মে. টন উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন অত্যাধুনিক শক্তি সাশ্রয়ী ও পরিবেশবান্ধব নতুন ঘোড়াশাল-পলাশ ইউরিয়া ফার্টিলাইজার ফ্যাক্টরী ২০২৩ সালের নভেম্বর মাসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শুভ উদ্বোধন করবেন। এ প্রকল্পের চলমান কাজের সার্বিক বিষয়টি উক্ত কর্মকর্তার জানা থাকায় প্রকল্পের সামগ্রিক সুপারভিশন ও মনিটরিং করা তাঁর পক্ষে সম্ভব হবে। এছাড়াও এ কর্মকর্তা বিসিআইসিতে যোগদানের পর রুগ্ন কর্ণফুলী পেপার মিলস লিঃ এর স্থানে ৫টি নতুন শিল্পকারখানা এবং খুলনা নিউজ প্রিন্ট মিলস লি: এর স্থানে ৩টি নতুন কারখানা স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে, যার ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি চলছে। এ পরিস্থিতিতে সরকারের স্বার্থেই শাহ্ মো: ইমদাদুল হক, চেয়ারম্যান (গ্রেড-১)-কে সরকারি চাকরি আইন, ২০১৮ এর ধারা-৪৯ অনুযায়ী ১ জানুয়ারী ২০২৩ খ্রি. হতে ৩১ ডিসেম্বর ২০২৪ খ্রি. পর্যন্ত (দুই) বছরের জন্য চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রদানের বিষয়ে আপনার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ বিবেচনার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি।

তবে ১৯৭৯ সালের সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী কোনো সরকারি কর্মচারী তার চাকরিসংক্রান্ত কোনো বিষয়ে প্রভাব খাটাতে পারেন না। ‘সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা, ১৯৭৯’ সালের ৩০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো সরকারি কর্মচারী তাহার চাকরিসংক্রান্ত কোনো দাবির সমর্থনে প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে সরকার বা কোনো সরকারি কর্মচারীর ওপর রাজনৈতিক বা অন্য কোনো বহিঃপ্রভাব খাটাইতে বা খাটাইবার চেষ্টা করিতে পারিবেন না।’

একই আইনে তদবির করার জন্য সংসদ সদস্যদের কাছে যাওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। আইনটির ২০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো সরকারি কর্মচারী কোনো ব্যাপারে তাহার পক্ষে হস্তক্ষেপ করার জন্য সংসদ সদস্য বা অন্য কোনো বেসরকারি ব্যক্তিকে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অনুরোধ জানাইতে পারিবেন না।’ ১৯৫৮ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি জারি করা এক স্মারকেও কোনো সরকারি কর্মচারী তার চাকরিসংক্রান্ত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার জন্য কোনো মন্ত্রী বা সংসদ সদস্যের কাছে তদবির করতে পারবেন না বলে স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Wordbridge School