• ঢাকা
  • বুধবার, ০৪ আগস্ট, ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮
abc constructions

‘ছোট্ট ঘটনায়’ মোমেনের দুঃখ প্রকাশ


নিজস্ব প্রতিবেদক জুন ২২, ২০২১, ০৫:৪৯ পিএম
‘ছোট্ট ঘটনায়’ মোমেনের দুঃখ প্রকাশ

ঢাকা: ছাতক থেকে সুনামগঞ্জ পর্যন্ত মাত্র ৩৪ কিলোমিটার রেলপথের রুট নির্ধারণ নিয়ে ফেসবুকে পাল্টাপাল্টি পোস্ট দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

রেললাইনের রুট নির্ধারণের জন্য তিন থেকে চারটি রুট নিয়ে আলোচনা চলছে। এরই মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন সুনামগঞ্জের পাঁচজন সংসদ সদস্যের পক্ষে অবস্থান নিয়ে একটি ডিও লেটার দেন রেলমন্ত্রীকে। বিষয়টি ভালোভাবে নেননি পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

আরও পড়ুন<<>>মোমেনে মনক্ষুন্ন মান্নান

মঙ্গলবার (২২ জুন) এনইসি সভায় জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে পরিকল্পমন্ত্রীকে পরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিষয়ে সাংবাদিকরো প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘ওনার সঙ্গে (পররাষ্ট্রমন্ত্রী) আমার ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে সম্পর্ক। আমার মনে হয় আরও বেশি সময় ধরে সম্পর্ক। অথচ সুনামগঞ্জের ৫ এমপিকে নিয়ে তিনি রেলমন্ত্রীকে ডিও লেটার দিলেন। আমি সুনামগঞ্জের এমপি উনি ভালোভাবেই জানেন। আমার সঙ্গে কথা না বলেই রেলমন্ত্রীকে ডিও লেটার দিয়েছেন। তিনি আমার সঙ্গে ফোনে কথা বলতে পারতেন। ’

এদিকে বিষয়টি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের সঙ্গে দ্বন্দ্বের গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘ছোট্ট একটি ঘটনা নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে।’

মঙ্গলবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজর কার্যালয়ে ড. মোমেন বলেন, সুনামগঞ্জের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি নিয়ে তার কোনো ধারণা ছিল না। তিনি এও স্বীকার করেন যে, রেলপথ মন্ত্রীকে চাহিদাপত্র পাঠানোর আগে তার অবশ্যই মান্নানের সঙ্গে কথা বলা উচিত ছিল।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মান্নান আমার বন্ধু, তার সঙ্গে আমার সম্পর্ক অটুটু রয়েছে। ঘটনাটি হল, আমরা কানেক্টিভিটি চাই। কিন্তু ঢাকা-সিলেট রেলপথ অত্যন্ত পুরোনো- রদ্দি মার্কা। সরকার এটিকে ব্রডগেজ করতে পরিকল্পনা নিয়েছে। কিন্তু রেলমন্ত্রী বলেছেন এটিতে অনেক খরচ হবে। কারণ সিলেটে শেষ প্রান্ত সেখানে ডিপো করতে হবে।’

কেন পাশের জেলা সুনামগঞ্জে রেল লাইন নিয়ে যাওয়া নিয়ে রেলপথ মন্ত্রীকে চাহিদাপত্র বা ডিও লেটার দিয়েছেন, তার ব্যাখ্যাও দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি এনিয়ে সুনামগঞ্জের ৫ জন সংসদ সদস্য আমার সঙ্গে দেখা করে, এ রেললাইনটি ছাতক পর্যন্ত নিয়ে যেতে রেলমন্ত্রীকে অনুরোধ করতে চিঠি দেন। ডিপোটি সেখানে প্রতিস্থাপন করলে খরচ কম হবে। আমি এ বিষয়ে সরল মনে রেলমন্ত্রীকে চিঠি দেই। কিন্তু আমি তো সুনামগঞ্জের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি সম্পর্কে জানি না। চিঠিটা দেয়ার আগে মান্নানের সঙ্গে কথা বলা উচিত ছিল।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার ভুল স্বীকার করে বলেন, ‘মান্নানের সঙ্গে দেখা হলে আমার পাশে বসে বলেছে, তাকে তো আমি ফোন করে তাদের আসার কথা বলতে পারতাম। এটি না করেই ডিও লেটার পাঠিয়ে দিলাম। এর মধ্যে আমি যুক্তরাষ্ট্র চলে গেছি। তারপরেই এনিয়ে হইচই শুরু হয়েছে।’

‘ওর সঙ্গে দেখা হলে আমি আলাপ করব এ নিয়ে।’

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Dutch Bangla Bank Agent Banking
Wordbridge School