• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২১, ১৩ কার্তিক ১৪২৮

ই-কমার্সে অস্বাভাবিক অফার দিয়ে পণ্য বিক্রি করলে মামলা


বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১, ০৮:৩২ পিএম
ই-কমার্সে অস্বাভাবিক অফার দিয়ে পণ্য বিক্রি করলে মামলা

ঢাকা : গ্রাহকদের প্রতারিত করার উদ্দেশ্যে কোন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান বাজার মূল্য বা খরচের তুলনায় অনেক বেশি ডিসকাউন্ট দিয়ে পণ্য বিক্রয় করলে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রতিযোগিতা কমিশনের চেয়ারপার্সন মো. মফিজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘গ্রাহকদের প্রতারিত করার লক্ষ্যে কোন কোন প্রতিষ্ঠান অস্বাভাবিক ডিসকাউন্ট দিয়ে পণ্য বিক্রি করেছে। ব্যবসাও করছে গ্রাহকের টাকায়। আগামীতে আর কোন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এমন প্রতিযোগিতা বিরোধী কর্মকান্ডের প্রমাণ পেলে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন স্বপ্রণোদিত হয়ে তার বিরুদ্ধে মামলা করবে।’

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে প্রতিযোগিতা কমিশনের সভাকক্ষে কমিশনের সঙ্গে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানসমূহের প্রতিনিধিদের মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সভায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা, প্রতিযোগিতা কমিশনের সদস্য জি এম সালাউদ্দিন ও নাসরিন বেগম, ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) সাধারণ সম্পদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল, ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদুল ইসলাম প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

মফিজুল ইসলাম জানান, প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির বিরুদ্ধে গতবছর ১২ আগস্ট কমিশন মামলা দায়ের করে। তিনি বলেন, ঈদ ধামাকা নামে ৮০ থেকে ১৫০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশ ব্যাক অফার দিয়ে পণ্য বিক্রি শরু হওয়ার পরই এই মামলা করা হয়। এর তদন্ত কাজ শেষ পর্যায়ে। শীঘ্রই সার্জশিট দেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

চেয়ারপার্সন বলেন, সরকার নিজে ব্যবসা করে না। কিন্তু রেফারির দায়িত্ব পালন করছে। তিনি বলেন, সরকারের ব্যবসা-বান্ধব নীতি সহায়তা ও গ্রাহকদের চাহিদার প্রেক্ষিতে ই-কমার্স অল্প সময়ে অনেক বেশি প্রবৃদ্ধি করতে পেরেছে। তবে ভোক্তার স্বার্থ সুরক্ষা দিতে প্রতিযোগিতা বিরোধী কোন কর্মকান্ড আর বরদাশত করা হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ব্যবসা পদ্ধতি জেনে বুঝে ক্রয়াদেশ দেওয়ার জন্য গ্রাহকদের প্রতি আহ্বান জানান। সাম্প্রতিক সময়ে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ভোক্তা অভিযোগের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে বলে তিনি জানান। 

সম্প্রতি ইভ্যালি, ই-অরেঞ্জ, আলিশা মার্টসহ আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গ্রাহক প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতারণার দায়ে ইতোমধ্যে ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল এবং তার স্ত্রী ও  প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। বর্তমানে দেশে ১৫০০ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অনলাইনে ব্যবসা করছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System