• ঢাকা
  • বুধবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২১, ১২ কার্তিক ১৪২৮

ইসি গঠনে আইন প্রণয়ন জরুরি


বিশেষ প্রতিনিধি অক্টোবর ৮, ২০২১, ১১:৩৮ পিএম
ইসি গঠনে আইন প্রণয়ন জরুরি

ঢাকা : দেশের নির্বাচনব্যবস্থা ভেঙে পড়ায় ভোট কেন্দ্র বিমুখ হচ্ছেন ভোটাররা। প্রায় প্রতিটি নির্বাচন পরিচালন করে বিতর্কিত হয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

এ অবস্থায় আগামী নির্বাচন কমিশন গঠনের আগে আইন প্রণয়নের দাবি জানিয়েছেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা।

সোমবার (৪ অক্টোবর) ইসি গঠন নিয়ে অনলাইনে আলোচনার আয়োজন করে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। এতে ইসি গঠনে আইন তৈরিতে বিভিন্ন পরামর্শ দেন, সাবেক বিচারপতি, নির্বাচন কমিশনার ও আমলারা।

আর নতুন কমিশন গঠনে খসড়া আইনের একটি প্রস্তাবে নানা সুপারিশ তুলে ধরেন  সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার।

আলোচনায় বক্তারা বলছেন, আর মাত্র চারমাস পর শেষ হচ্ছে প্রধান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ। এ কমিশেনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গঠন হবে নতুন ইসি।

আর ওই ইসির অধীনেই আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, যাদের কাছে রয়েছে দেশের কোটি কোটি মানুষের অনেক প্রত্যাশা। তাই সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন করতে সর্বজন গৃহীত নির্বাচন কমিশন গঠন করা জরুরি। যদিও শুধু নিরপেক্ষ কমিশন গঠন করলেই সুষ্ঠু ভোট হবে না। তবুও জনগণের আস্থার প্রথম স্তর গ্রহণযোগ্য ইসি।

আলোচনায় অংশ নেন-বিচারপতি এম এ মতিন, সাবেক সচিব আব্দুল লতিফ মণ্ডল, সাবেক নির্বাচন কমিশনার ড. এম সাখাওয়াত হোসেন ও ডা. জাফর উল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

আলোচনায় কয়েকজন বক্তা জাতীয় সরকার গঠনেরও প্রস্তাব দিয়ে বলেন-শতভাগ নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন দিয়েও সুষ্ঠু ভোট সম্ভব না, যদি সেটি দলীয় সরকারের অধীনে হয়। তাই নির্বাচনকালীন সরকারব্যবস্থায় একটা ঝাঁকুনি দেওয়ার পরামর্শও উঠে আসে এ আলোচনায়।

বিকল্প প্রস্তাব দিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলছেন, মাত্র ৩ মাসের নিরপেক্ষ সরকারব্যবস্থা কোনো পরিবর্তন আনতে পারবে না। এজন্য স্থায়ী সংকট সমাধানে দুই বছরের জাতীয় সরকার প্রয়োজন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি কেএম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিশন দায়িত্ব গ্রহণ করে। ফলে তাদের ৫ বছর মেয়াদ আগামী বছর ১৪ ফেব্রুয়ারি শেষ হবে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System