• ঢাকা
  • শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

খালেদায় উত্তাল রাজপথ, ভয় পায় না আ.লীগ


নিজস্ব প্রতিবেদক নভেম্বর ২২, ২০২১, ০৮:২২ পিএম
খালেদায় উত্তাল রাজপথ, ভয় পায় না আ.লীগ

ঢাকা: চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার দাবিতে রাজপথে সরব উপস্থিতি জানান দিচ্ছে বিএনপি। গত শনিবার গণঅনশন, রোববার সংসদ সদস্যদের মানববন্ধনের পর সারাদেশে সোমবারের (২২ নভেম্বর) সমাবেশ ঘিরে বেশ উত্তাল ছিল রাজপথ। সমাবেশ থেকে আগামী বুধবার (২৪ নভেম্বর) সারা দেশে জেলা প্রশাসকদের কাছে স্মারকলিপি প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি।এছাড়া খালেদা জিয়ার ইস্যুতে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আরও পড়ুন: জোড়াতালির জোট...

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশে ছিলেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সিনিয়র নেতারা।

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, বিদেশে চিকিৎসা করানোর সুযোগ না দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।নিঃশর্ত মুক্তি দিয়ে প্রমাণ করুন তার প্রতি আপনাদের কোনো শত্রুতা নেই।

আরও পড়ুন: দু’দলেই তৃণমূলে অসন্তোষ

স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার ক্ষমতা আছে বিএনপির। এজন্য যেকোনো দায়িত্ব নিতে আমরা রাজি। আমাদের সেই ক্ষমতা আছে। এর আগেও স্বৈরাচারের পতন ঘটিয়েছি। আমরাই পারবো নেত্রীকে মুক্ত করতে।

রাজধানীতে এদিনের সমাবেশ শান্তিপূর্ণ হলেও সারাদেশে ছিলো ভিন্ন চিত্র। 

আরও পড়ুন: নতুন দলে কৌতুহলী মানুষ, সময় বলবে কে কেমন

জানা গেছে, নাটোরে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ, রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল নিক্ষেপ করে। শহরের আলাইপুর বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা মানবিক দৃষ্টিকোন থেকে বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে সুচিকিৎসার জন্য পাঠাতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

আরও পড়ুন: যতটুকুতে হুমকি নেই ততটুকু আন্দোলন...

এ সময় বক্তারা বলেন, সুচিকিৎসার অভাবে বেগম খালেদা জিয়ার কিছু হলে ১২ ঘণ্টার মধ্যে সরকারের পতন হবে। বিএনপির নেতাকর্মীরা শরীরের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য লড়াই করে যাবে। প্রতিটি নেতাকর্মীই মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

এদিকে বিএনপির তরুণ ও জনপ্রিয় নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন নেতাকর্মীদের কাঁথা-বালিশ নিয়ে রাস্তায় ঘুমানোর প্রস্তুতি নিতে বলেছেন।

আরও পড়ুন: আন্দোলনের রূপরেখা সাজিয়ে ফেলেছে বিএনপি

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য ইশরাক বলেন, আমরা আমাদের নেত্রীর সুচিকিৎসার জন্য যে আন্দোলন করছি, সেটার ফল পেতে চাই। আপনারা কাঁথা-বালিশ নিয়ে তৈরি হন, বাড়ির কথা ভুলে যান, রাস্তায় স্থায়ীভাবে ঘুমানোর প্রস্তুতি নিন।

এছাড়া বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি খায়রুল কবির খোকনের নরসিংদীর বাসা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘিরে রাখে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

আরও পড়ুন: একটি কৌশলে মিল দু’দলে

সোমবার রাতে রিজভী গণমাধ্যমের কাছে অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনের সমাবেশ শেষে কিছু নেতাকর্মী খোকনের বাসায় গেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের ঘিরে রাখে।রুহুল কবির রিজভী অবিলম্বে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সেখান থেকে সরে যাওয়ার আহ্বান জানান।

তবে খালেদা ইস্যুতে বিএনপির এই আন্দোলন কর্মসূচি বা হুমকি-ধামিককে পাত্তা দিচ্ছে না আওয়ামী লীগ। সরকারকে গদিচ্যুত করার হুমকিকে জুজুর ভয় বলছেন ক্ষমতাসীন দলটির নেতারা।

তারা বলছেন, সরকার পতনের কথা বিএনপির মুখে মানায় না। দেশের অধিকাংশ মানুষই আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে চায়।

আরও পড়ুন: হাকডাক দিচ্ছে বিএনপি, পাত্তা দিচ্ছে না আ.লীগ 

একই সঙ্গে খালেদা জিয়ার বিষয়টি রাজনৈতিক ইস্যু হতে দিতে চায় না আওয়ামী লীগ। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সোমবার বলেছেন, শেখ হাসিনা সরকার বিএনপির হাতে কখনও ইস্যু তুলে দেবে না। জনগণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট যে কোনো ইস্যুতে সরকার সবসময়ই সক্রিয় ও তৎপর।

তিনি বলেছেন, বিএনপি এক দফা অথবা ১০ দফা আন্দোলন করুক, তাতে আওয়ামী লীগের কিছু যায় আসে না। কারণ আওয়ামী লীগ আন্দোলনে ভয় পায় না।আওয়ামী লীগ রাজপথের সংগঠন। আন্দোলন-সংগ্রাম করেই ক্ষমতায় এসেছে। 

আরও পড়ুন: পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছে বিএনপি
 
আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন প্রশ্ন রেখে বলেন, দণ্ডপ্রাপ্ত কোনো আসামিকে মানবিক কারণে দেশের বাইরে চিকিৎসা করানোর কোনো নিয়ম আছে?  দেশেই খালেদা জিয়াকে স্বাধীনভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন তারা। এই সুযোগও কেউ কাউকে দেয় না। প্রধানমন্ত্রী মানবিক বলে এই সুযোগ দিয়েছেন। আন্দোলনের দল আওয়ামী লীগ, বিএনপি না। তাদের এসব হুংকারের কাছে আমরা মাথা নত করবো না।

দলটির আরেক সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, আমরা মনে করি জনগণ তাদের সঙ্গে নেই। আমরা তাদের এসব হাঁকডাকে ভয় পাই না। তবে আন্দোলনের নামে তারা যদি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে জনগণ তাদের ঘর থেকেই বের হতে দিবে না।

দলটির জেলা পর্যায়ের নেতারা বলেন, আন্দোলনের কথা বলে বিএনপি মানুষকে টানতে পারবে না। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগের আমলে শান্তিতে আছে। দীর্ঘদিন থেকেই তারা সরকার হটাও আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করেছে। জনগণও তাদের পাশে নেই। তাদের যেকোনো বিশৃঙ্খল কার্যক্রম আমরা প্রতিহত করা হবে।

সোনালীনিউজ/আইএ

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System