• ঢাকা
  • শনিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

কষ্টার্জিত জয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু অস্ট্রেলিয়ার 


ক্রীড়া ডেস্ক অক্টোবর ২৩, ২০২১, ০৭:৪১ পিএম
কষ্টার্জিত জয়ে বিশ্বকাপ মিশন শুরু অস্ট্রেলিয়ার 

ঢাকা:  রোমাঞ্চকর ম্যাচে শেষ হাসি হাসল অস্ট্রেলিয়া। লো স্কোরিং ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে অজিরা। লক্ষ্যটা ১১৯ রানের। তবুও বেশ বেগ পেতে হয়েছে অ্যারন ফিঞ্চের দলকে। ম্যাচ গড়িয়েছে শেষ ওভার পর্যন্ত। অল্প রান করেও সব রকম চেষ্টা করেছে টেম্বা বাভুমার দল। তবে সেটি জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না। তাই জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে অস্ট্রেলিয়া।

রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর লো স্কোরিং ম্যাচটি জিততে অস্ট্রেলিয়াকে খেলতে হয়েছে ১৯.৪ ওভার। মাত্র ২ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটের জয় পেয়েছে অজিরা।

শেষদিকে ১৬ বলে ২৪ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন মার্কাস স্টয়নিস। এছাড়া স্মিথ করেন ৩৪ বলে ৩৫, প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি ম্যাক্সওয়েলও। তিনি করেন ২১ বলে ১৮। শেষ দিকে দলের জয়ে ভূমিকা রেখেছেন ম্যাথু ওয়েডও। ১০ বলে ১৫ করে স্টয়নিসের সঙ্গে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছেড়েছেন এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান।

টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং দৈন্যতা নতুন কিছু নয়। তাদের দুটি সর্বনিম্ন স্কোরই (৮৯ ও ৯৬) অজিদের বিপক্ষে। এবার এই ফরম্যাটের বিশ্বকাপেও নিজেদের সর্বনিম্ন ইনিংসে গুটিয়ে যাওয়ার লজ্জা পেতে বসেছিল প্রোটিয়ারা। শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। ৯ উইকেটে ১১৮ রানে থামে তারা।

বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার সর্বনিম্ন স্কোর ভারতের বিপক্ষে, ২০০৭ সালে ডারবানে ভারতের বিপক্ষে ৯ উইকেটে ১১৬ রান করেছিল।

এর আগে অজি বোলারদের তাণ্ডবে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১১৮ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারে ১১ রান তোলে বাভুমা ও ডি কক। দ্বিতীয় ওভারেই দক্ষিণ আফ্রিকা হারায় প্রথম উইকেট। স্পিনার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের বলে বোল্ড ওপেনার টেম্বা বাভুমা। ১২ রানে ফিরলেন তিনি। ম্যাচের তৃতীয় ওভারে ফের ধাক্কা খায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়ানডাউনে নামা রাসি ফন ডার ডুসেন ফিরলেন উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে। 

নিজের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেও উইকেট নেন হ্যাজেলউড। এবার ফেরালেন কুইন্টন ডি কককে। ৭ রান করে ডি কক বোল্ড হলেন। 

এরপর আরেক দুর্দান্ত ব্যাটসম্যান ক্লাসেনকেও বেশিদূর এগোতে দেয়নি অজি বোলাররা। ১৩ রানে এই ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়েছেন কামিন্স। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের বিদায়ের পর জুটি গড়ার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে মারকুটে ব্যাটসম্যান মার্করাম ও ডেভিড মিলার। কিন্তু কিলার মিলারও ভালো কিছু করতে পারেননি। 

জাম্পার বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার আগে ১৬ রান করে বাহাতি এই ব্যাটসম্যান। এরপর প্রিটোরিয়াস, মহারাজরা দলের সংগ্রহ বাড়াতে পারেননি। একমাত্র ভরসা হয়ে টিকে থাকা মার্করামও নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি। ফিরেছেন ৩৬ বলে ৪০ রান করে।  

সোনালীনিউজ/এআর

Haque Milk Chocolate Digestive Biscuit
Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System