• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯

কিংবদন্তী সেরেনাকে হারিয়ে চমকে দিলেন হারমনি


ক্রীড়া ডেস্ক জুন ২৯, ২০২২, ০৩:২২ পিএম
কিংবদন্তী সেরেনাকে হারিয়ে চমকে দিলেন হারমনি

ঢাকা: উইম্বলডনের প্রথম রাউন্ডেই অঘটন ঘটালেন ফ্রান্সের অবাছাই টেনিস খেলোয়াড় হারমনি টান। নারী এককের প্রথম রাউন্ডেই কিংবদন্তি সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে দিয়েছেন হারমনি। প্রায় এক বছর পর কোর্টে ফিরে প্রথম রাউন্ডেই বিদায়ঘণ্টা বাজলো সেরেনার।

হারমনি ট্যানের জন্ম ১৯৯৭ সালে প্যারিসে। তার দুই বছর আগেই কুইবেকে বেল চ্যালেঞ্জে পেশাদার টেনিস কোর্টে অভিষেক ঘটে সেরেনা উইলিয়ামসের। কাল উইম্বলডনের সেন্টার কোর্টে হারমনি যখন মার্কিন কিংবদন্তির মুখোমুখি হলেন, স্বাভাবিকভাবেই তার দুঃস্বপ্ন দেখার কথা।

প্রায় এক বছর, দিনের হিসাবে ৩৬৪ দিন পর টেনিসের একক ইভেন্টে ফিরেছিলেন ৪০ বছর বয়সী সেরেনা। এক সেট পিছিয়ে পড়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন, বাঁচিয়েছেন ম্যাচ পয়েন্ট, টাই-ব্রেক: প্রায় ৩ ঘন্টা ১১ মিনিটের লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত আর জিততে পারেননি।

সেরেনা ওপেন যুগে সর্বোচ্চ ২৩ গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী তারকা। আর অবাছাই হারমনি এবারের আগে কখনো উইম্বলডনে খেলেননি। টিভিতে সেরেনা-ভেনাসদের খেলা দেখে বড় হয়েছেন। তার কোচ নাথালিয়ে তাউজিয়াতের অভিজ্ঞতা রয়েছে সেরেনার মুখোমুখি হওয়ার। অথচ ২৪ বছর বয়সী এই ফরাসি মেয়ে কিনা উইম্বলডনে নিজের অভিষেক ম্যাচে সেরেনাকে হারিয়ে দিলেন!

প্রথম রাউন্ডে তার বিপক্ষে ৭-৫, ১-৬, ৭-৬ (১০-৭) গেমের জয়ে ঘাসের কোর্টে নিজের প্রথম জয় তুলে নেন র‌্যাঙ্কিংয়ে ১১৫তম হারমনি ট্যান। সেরেনার বিপক্ষে এমন জয় তার কাছে স্বপ্নের মতো, ‘হ্যাঁ, স্বপ্নের মতো লাগছে। ছোটবেলায় সেরেনাকে টিভিতে দেখেছি। আমার কোচ নাথালিয়ে তাউজিয়াত ২০ বছর আগে তার সঙ্গে খেলেছে। সে (সেরেনা) কিংবদন্তি। ২৩ গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী কারও মুখোমুখি হলে ভয় লাগবেই। কোর্টে নামার পর আমিও ভীত ছিলাম। কিন্তু জিততে পেরে ভালো লাগছে।’

তাউজিয়াত ফ্রান্সের সাবেক টেনিস খেলোয়াড়। সেরেনার মুখোমুখি হওয়ার আগে এই কোচ হারমনিকে বলেছিলেন, উইম্বলডনে প্রথম ম্যাচ, সেটাও সেন্টার কোর্টে সেরেনার বিপক্ষে। ম্যাচটা উপভোগের মন্ত্র পেয়েছিলেন কোচের কাছ থেকে। শেষ পর্যন্ত সবাইকে চমকে দিয়ে এমনভাবে জিতলেন যে এবারের উইম্বলডনে এটাই এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সময়ের ম্যাচ হয়ে রইল।
 
প্রায় ১২ মাস আগে এই উইম্বলডনেই প্রথম রাউন্ডে চোটের কারণে কাঁদতে কাঁদতে কোর্ট থেকে বিদায় নিয়েছিলেন সেরেনা।  

সোনালীনিউজ/এআর

Wordbridge School
Sonali IT Pharmacy Managment System