• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১

চশমার কাছে ১২ ভোটে হেরে গেল নৌকা


জয়পুরহাট প্রতিনিধি ডিসেম্বর ২৭, ২০২১, ১২:৩৪ পিএম
চশমার কাছে ১২ ভোটে হেরে গেল নৌকা

চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তোজাম্মেল হক

জয়পুরহাট : চতুর্থ ধাপে ইউপি নির্বাচনে জয়পুরহাট সদর উপজেলার ধলাহার ইউনিয়নে চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তোজাম্মেল হকে কাছে হেরেছে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কোরবান আলী। কেননা ভোটযুদ্ধে কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। তাই নির্বাচনের আগে সারাদিন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেন প্রার্থীরা। ভোটাররাও ভোটের মাধ্যমে বেছে নেন তাদের পছন্দের প্রার্থীকে। ভোটগ্রহণ শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে শুরু হয় গণনা। 

এ সময় প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা বেড়ে যায়। গণনা শেষে জানা গেল মাত্র ১২ ভোটে পরাজিত হয়েছেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। এমনই ঘটনা ঘটেছে জয়পুরহাট সদর উপজেলার ধলাহার ইউনিয়নে।

জানা গেছে, ওই ইউনিয়নে চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তোজাম্মেল হক ৫ হাজার ৮৯৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কোরবান আলী পেয়েছেন ৫ হাজার ৮৮৬ ভোট। মাত্র ১২ ভোটের ব্যবধানে চশমার কাছে হেরে গেছে নৌকা।

এদিকে চকবরকত, মোহাম্মদাবাদ ও বম্বু ইউপিতে অল্প ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছে নৌকা। বম্বু ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোল্লা শামসুল আলম ৬ হাজার ৯৩৩  ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আতাউর রহমান (মোটরসাইকেল প্রতীক) পেয়েছেন ৬ হাজার ৮১২ ভোট। 

চকবরকত ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. শাহজাহান আলী (নৌকা প্রতীক) ৩ হাজার ৮৭০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মেজবাহ উদ্দীন (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ৩ হাজার ৮১৪ ভোট। মোহাম্মদাবাদ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আতাউর রহমান (নৌকা প্রতীক) ৪ হাজার ৫৮৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মাহবুর আলম মিলন (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৪ হাজার ৫১০ ভোট।

তবে দোগাছী, ভাদশা, আমদই ও পুরানাপৈল ইউনিয়নে বেশি ভোটের ব্যবধানে নৌকার জয় হয়েছে। দোগাছী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী সামসুল আলম (নৌকা প্রতীক) ১৬ হাজার ৫৯৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী বেলায়েত হোসেন বেনু (আনারস) পেয়েছেন ৪ হাজার ৬৩২ ভোট। 

ভাদসা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ছরোয়ার হোসেন (নৌকা প্রতীক) ১৪ হাজার ৬৮১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিদ্রোহী প্রার্থী হায়দার আলী মন্ডল (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৬ হাজার ৩৪৬ ভোট। আমদই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহানুর আলম সাবু (নৌকা প্রতীক) ১১ হাজার ৫৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মিজানুর রহমান চৌধুরী (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৪২ ভোট। 

পুরানাপৈল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ প্রার্থী খোরশেদ আলম (নৌকা প্রতীক) ৭ হাজার ৭৫৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী নজরুল ইসলাম (লাঙ্গল প্রতীক) পেয়েছেন ৫ হাজার ৫৮৮ ভোট।

এর আগে জামালপুর ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আওয়ামী লীগ মনোনীত হাসানুজ্জামান মিঠুকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

Wordbridge School
Link copied!