• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

আল্লাহ আমারে মরন দিতে পারে না!

আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ দারিদ্র সীমার নিচে বসবাস করে। তাদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয় দিন এনে দিন খেয়ে। করোনার মহামারি শহর ও গ্রামীণ সমাজের সকল স্তরে প্রভাব বিস্তার করেছে। তার রাহু গ্রাস থেকে মুক্তি পায়নি ধনী-গরীব কেউই। তবে শহরের প্রান্তিক সীমিত আয়ের মানুষদের উপর করোনার থাবা বসেছে ভয়াবহ ভাবে। অন্য দিকে মরার উপর খরার ঘা হয়ে এসেছে লকডাউন। রাজধানীর প্রান্তিক শ্রমিকদের না আছে দেখার মতো কেই আবার পকেটে না আছে চলার মতো পর্যাপ্ত টাকা। তারা কেউ জীবিকা নির্বাহ করে বাদাম, ঝালমুড়ি, চা-বিস্কিট, বিভিন্ন ধরনের সবজি-ফলমূল এবং নানা প্রয়োজনীয় জিনিস বিক্রি করে। তাদের এখন চলছে তিন বেলার পরিবর্তে দু’বেলা এবং কোনও কোনও সময়ে একবেলা খেয়ে। করোনার প্রথম দিকে সরকারি এবং ব্যক্তি পর্যায়ের সহযোগিতা পেলেও এখন নির্ভর করতে হচ্ছে বেচা-বিক্রির উপর। লকডাউনের কড়াকড়ি থাকলেও তাদের বেচা-বিক্রি করতে হচ্ছে প্রশাসনের সঙ্গে ইঁদুর-পুলিশ খেলে।