• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১

তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে মানববন্ধন


রংপুর ব্যুরো  মার্চ ২৫, ২০২৩, ০২:৩৪ পিএম
তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে মানববন্ধন

রংপুর: ভারতে নতুন খাল খনন করে তিস্তার পানি প্রত্যাহারের চক্রান্ত ও তিস্তাসহ অভিন্ন ৫৪ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে তিস্তা বাচাঁও আন্দোলনের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৫ মার্চ) দুপুরে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে খাল খনন করে তিস্তার পানি প্রত্যাহার ও অভিন্ন ৫৪ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসুচি অনুষ্ঠিত হয়। 

এতে তিস্তা বাচাঁও সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি এডভোকেট পলাশ কান্তি নাগ সভাপতিত্ব করেন।

পলাশ কান্তি নাগ বলেন, শুষ্ক মৌসুমে এমনিতেই তিস্তায় পানি থাকেনা। আবাদে পানি পাওয়া দুষ্কর হয়। পানি না থাকায় ভালো চাষাবাদও হয় না। এরমধ্যে যদি আবার ভারত নতুন করে খাল খনন করে। তাহলে এঅঞ্চলের প্রায় ২কোটি মানুষের উপর প্রভাব পড়বে। ভারত আন্তর্জাতিক নদী আইন লংঘন করে একতরফা ভাবে তিস্তাসহ অভিন্ন ৫৪ নদীর পানি প্রত্যাহার করছে।

তিনি বলেন, তিস্তার উজানে গজলডোবায় বাঁধ দিয়ে পানি সরিয়ে নেওয়ার কারণে আমাদের উত্তরবঙ্গ মরুভূমির পথে। ভারতের পানি আগ্রাসনের কারণে আমাদের প্রাণ-প্রকৃতি-প্রতিবেশ বিপন্ন। প্রমত্তা তিস্তা ধু-ধু বালু চরে পরিণত হয়েছে। হাজার হাজার মৎস্যজীবী মাঝি বেকার হয়ে পথে বসেছে।

পলাশ আরও বলেন, তিস্তায় পানি না থাকায় কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। বর্তমানে আবার ভারত নতুন দুটি খাল খনন করে তিস্তার পানি প্রত্যাহারের পাঁয়তারা করছে। 

মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, অধ্যাপক মোজাহার আলী, অধ্যাপক আব্দুস সোবহান, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর হোসেন চাঁন্দ, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবলু নাগসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ভারত কর্তৃক নতুন খাল খনন করে তিস্তার পানি প্রত্যাহারের সর্বনাশা চক্রান্ত বন্ধ ও তিস্তাসহ অভিন্ন ৫৪ নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ে সরকারের কার্যকর পদক্ষেপের দাবি জানান মানব্বন্ধনকারীরা।

সোনালীনিউজ/একেএম /এসআই

Wordbridge School
Link copied!