• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১
বুড়িমারী স্থলবন্দর

৮দিন পর কাজে ফিরেছেন শ্রমিকরা


লালমনিরহাট প্রতিনিধি সেপ্টেম্বর ২০, ২০২৩, ০৫:১১ পিএম
৮দিন পর কাজে ফিরেছেন শ্রমিকরা

লালমনিরহাট: দাবি পূরণের আশ্বাসে পেয়ে ৮দিন পর কাজে ফিরেছেন লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দরের শ্রমিকরা। গত মঙ্গলবার রাতে নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, কাস্টমস প্রতিনিধিদের সাথে যৌথ বৈঠকে শ্রমিকদের যাবতীয় দাবি পূরণে আশ্বাস দেন। পর গতকাল বুধবার সকাল থেকেই লোড -আনলোড কাজ শুরু করেছেন শ্রমিকরা। এতে বন্দরের অচলাবস্থা  কেটে স্বাভাবিক হয়েছে বন্দরের আমদানি-রফতানি কার্যক্রম। তবে দীর্ঘ সময় লোড আনলোড বন্ধ থাকায় আমদানিকারক ব্যাবসায়ীরা ইতিমধ্যে লোকসানের মুখে পড়েছেন।

স্থলবন্দর সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার রাতে বুড়িমারী স্থলবন্দর পরিদর্শন ও স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে মতবিনিময় শেষে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালেদ মাহমুদ চৌধুরী, স্থানীয় সংসদ সদস্য মোতাহার হোসেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান  অ্যাড. মতিয়ার রহমান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ উল্যাহ,  জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলামসহ কাস্টম কর্মকর্তা ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠকে বসেন শ্রমিক নেতা ও আন্দোলনকারীরা। বৈঠক শেষে কোন সিদ্ধান্ত না জানালেও রাতেই শ্রমিকরা কাজে ফেরার ঘোষণা দেন। সেই মোতাবেক সকাল থেকেই লোড আনলোড কাজ শুরু করেছেন তারা।

গত ১২ সেপ্টেম্বর হতে বুড়িমারী স্থলবন্দরে শ্রমিক অসন্তোষের কারণে ৮ দিন ধরে পণ্য ওঠানামার কাজ বন্ধ রাখে শ্রমিকেরা। গত ১২ সেপ্টেম্বর শ্রমিকদের মজুরীর টাকা না দেওয়া ও সাধারণ শ্রমিকদেরকে কাজের সিরিয়াল দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্রমিক ও সরদার গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে রাবার বুলেট ও টিয়ার শেল ছুড়ে পুলিশ, এতে সাংবাদিকসহ ১৫ জন আহত হন।

আন্দোলনে অংশ নেওয়া শ্রমিকরা জানান, দীর্ঘদিন থেকেই নিয়মিত মজুরি পাচ্ছেন না তারা। এর পাশাপাশি মজুরি না বাড়ায় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বাজারে সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন শ্রমিক পরিবারগুলো। এ অবস্থায় শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে একাধিকবার আলোচনা করেও সমাধান না পেয়ে আন্দোলনের পথ বেছে নেন তারা।

 এমএস

Wordbridge School
Link copied!